কৃষ্ণচূড়া বিষয়ক জটিলতা

শুন্য শুন্যালয় ৭ মে ২০১৭, রবিবার, ১২:৩৩:৩৪পূর্বাহ্ন রম্য ২৭ মন্তব্য

113470_186

আজ প্রত্যুষে এক জানে জিগার কৃষ্ণচূড়া ফুলের একটি ছবি পাঠাইয়া বলিল’ প্রাণ ভরিয়া উহাকে দেখিয়া লও, শেষ বারের মত উহার নাম ধরিয়া ডাকিয়া নাও, অচিরেই উহার নাম পরিবর্তন হইয়া যাইবে।’ তাহাকে বলিলাম ‘ইহা কিভাবে সম্ভব?’ উত্তরে বলিল ‘পাঠ্যপুস্তকে নজরুলের কবিতার শব্দ পাল্টাইয়া মহা-শ্মশান এর পরিবর্তে গোরস্থান করা হইয়াছিল তাহা কি তুমি অবগত নও?’
ভীষণ চিন্তিত হইয়া পরিলাম। কৃষ্ণচূড়ার নাম পরিবর্তিত হইয়া কি হইতে পারে? কৃষ্ণর নাম পরিবর্তিত হইয়া ইসলামী করা হইবে? কৃষ্ণকান্তের উইল এর পরিবর্তে কি আবদুল কান্তের উইল পড়িতে হইবে? ইন্ডিয়ার একটি স্থানের নাম আছে কৃষ্ণনগর উহাকে কি আমরা আবদুল নগর বলিব? ইন্ডিয়া ভ্রমনে কেহ যদি আমরা যাই, আমরা কি ইন্ডিয়ার বাস কাউন্টারে বলিব ভাই একখানা আবদুল নগরের টিকিট দেন তো?
মাথা পুরাই আউলা ঝাউলা হইয়া গেল।
আচ্ছা কিশোর কুমারের অতি বিখ্যাত হৃদয় ছেদারক গান ‘আশা ছিল ভালবাসা ছিল‘ এর এই অংশ টুকু কি এইভাবে গাহিব? ‘এই সেই আবদুলচুড়া যার তলে দাঁড়িয়ে হাতে হাত…………… ‘ কেমন লাগিবে শুনিতে?
এই গান খানা এমন ভাবে শুনিতে কেমন লাগিবে? আবদুল আবদুল আবদুল……… আবদুল আইলা রাধার কুঞ্জে……
আবদুল কলি আমি তারে বলি, কালো তারে বলে গাঁয়ের লোক……  এই গান তাহা হইলে এইভাবেই শুনিতে হইবে!
বন্ধু তোমার চোখের মাঝে চিন্তা খেলা করে গানের শিল্পীর নাম কি আবদুলকলি হইয়া যাইবে?
সগৌরবে চলছে বলাকা প্রেক্ষাগৃহে হুমায়ুন আহমেদের আবদুলপক্ষ 

আমার মাথা পুরাই শেষ হইয়া গিয়াছে। এত এলোমেলো চিন্তা আমি আমার জন্মের পর হইতে আর করি নাই। আমার মাথায় কি প্রবেশ করাইয়া দিল আমার জানে জিগার? 🙁
********************************************************************

আমাদের সবার প্রিয় সজনে ডাটা সোনেলার রম্য রাজটা কই কই টই টই করিয়া ঘুরিয়া বেড়াইতেছে কে জানে? মিস করি সজু ডার্লিং

১৬৬০জন ১৬৬০জন
37 Shares

২৭টি মন্তব্য

মন্তব্য করুন

লেখকের সর্বশেষ মন্তব্য

ফেইসবুকে সোনেলা ব্লগ