“কুলাঙ্গার আমি”

শান ১৬ জানুয়ারী ২০১৫, শুক্রবার, ০৯:৪১:২৫অপরাহ্ন বিবিধ ২ মন্তব্য

শীতকাল ই আমার প্রিয় !
যখন …….
দীঘল অমারাত্রিতে নগরে , মফস্বলে , গ্রামে – শীতের স্পর্ধিত প্রকোপ ,
শীতবস্ত্র বঞ্চিত সৃষ্টির শ্রেষ্ঠজীবগুলোর গ্লানিময় দীর্ঘশ্বাস !
কুয়াশার চাদর চিরে বহুপ্রতীক্ষিত অলস সূর্য্যটার বিলম্বিত আত্মপ্রকাশ –
তখন ……
উষ্ণতায় মাদকাসক্ত আমার চর্বিযুক্ত শরীরটায় নিষিদ্ধ কামনা জাগে ,
তাই !
এই হাড়কাঁপানো শীতকাল ই আমার বড্ড ভালোলাগে !

আজ …………
লেদারের জ্যাকেটে বাড়ন্ত সব স্মার্টনেসের দৌরাত্ম্য !
ছেলেবেলার কিতাবের ঐ মলাটে আটকানো মানবতার শিক্ষা , ভাতৃত্ব !
অধরে পুড়তে থাকা দশ টাকায় …..
হীমবাহের গ্রাসে জর্জরিত নগরের ফুটপাতে মানব কষ্টগুলো , জমাট বদ্ধ হয়ে হচ্ছে ম্লান !
নগরের বাবুদের নি:শ্বাসে দশ পেগ ভদকার মৌ মৌ ঘ্রাণ !

আমি আজ –
মনুষ্যত্বহীন এক বিবর্তিত ক্যাকটাস !
ব্লেজার , মাফলায় প্যাঁচানো এক চতুষ্পদ –
তবু দোপায়ে দন্ডায়মান নিকৃষ্টতম জন্তু হিসাবে করেছি – বিশুদ্ধ আত্মপ্রকাশ ।

আমার উষ্ণ লেপের আস্তর ছেদ করতে পারেনা –
পলিবাংলার এক পৌঢ় কৃষকের চঞ্চল জোড়া চোখের কষ্ট !
সূর্য্যোলোকের অপর্যাপ্ততায় যার রোয়া ধানের চারাগুলো হয়েছে অকালে নষ্ট !
পেন্ডুলামের মত দুলছে –
হাড়হাভাত ঐ কৃষকের ভাগ্যের চাকা !
আমার অধর তখন গরম কফির ধোঁয়ায় ঢাকা !
আমি ছলে বলে কৌশলে – ‘ উহ ! আহ ! আহ্হারে ! ‘ শব্দতুলে দেখাই দেশপ্রেমবোধ !
বিষধর দন্তযুক্ত , এক কুলাঙ্গারের কিছু দীর্ঘশ্বাস – শীতের কুয়াশা চিরে জাগাতে চায় শ্রেনীহীন ভাতৃত্ববোধ !

৩৫৭জন ৩৫৭জন
0 Shares

২টি মন্তব্য

মন্তব্য করুন

লেখকের সর্বশেষ মন্তব্য

ফেইসবুকে সোনেলা ব্লগ