নরখাদক হিংস্র জানোয়ার তুমি বেশি ভয়ঙ্কর না আমি
ক্ষুধা ছাড়াই আমি মাঠ-ঘাট সব খেয়ে সাবাড় করি
স্বার্থ সিদ্ধির জন্য মানুষ কে ফাঁদে ফেলতে নিত্য নতুন ফন্দি আঁটি।

ক্ষুধা মিটলেই তুমি নিশ্চিন্তে থাকো ঘুমিয়ে
আমার ক্ষুধা মিটে না কোন কালে।
পরকীয়ার জন্য দুধের শিশুকে দেই বলি
সম্পদের জন্য ভাইয়ের গলায় চালাই ছুরি,
আদিম উল্লাসে জৈবিক ক্ষুধা মিটিয়ে তরুণীর গলাটিপে ধরি
তুচ্ছ ঘটনায় বন্ধুকে পায়ের তলে পিষে মারি,
নরখাদক হিংস্র জানোয়ার তুমি বেশি ভয়ঙ্কর না আমি?

মানুষ আমি সর্বশ্রেষ্ঠ জীব হতে পারি
তোমার চেয়েও ঢের কৌশল জানি আমি
ক্ষমতার জন্য গণতন্ত্রের পেটে মারি লাথি
মাঝে মাঝেই আবার যোগী হওয়ার ভান করি।
মসজিদে যাই, মন্দিরে যাই, গীর্জায় গিয়ে বসি
সাধু সেজে হাতে তসবি নিয়ে শুধু ঈশ্বরের নাম জপি।
বোকাচুদা জনগণ কিছুই বোঝে না শুধুই কীর্তন গায় আমার
ক্ষমতা হাতে এলেই সব ভুলে যাই নিজের পকেট করি ভারি।

নরখাদক হিংস্র জানোয়ার তুমি বেশি ভয়ঙ্কর না আমি
লোভের বশবর্তী হয়ে প্রয়োজনে তোমাকেও হত্যা করতে কুণ্ঠিত হই না আমি।

৫২৬জন ৫২৬জন
0 Shares

৪টি মন্তব্য

মন্তব্য করুন

লেখকের সর্বশেষ মন্তব্য

ফেইসবুকে সোনেলা ব্লগ