কাজের বুয়া

মোহাম্মদ মনজুরুল আলম চৌধুরী ৯ ফেব্রুয়ারী ২০২১, মঙ্গলবার, ০৯:২৩:৪৯অপরাহ্ন একান্ত অনুভূতি ১৮ মন্তব্য

কাজের বুয়া এ ঘরের কথা লাগায়
অন্য ঘরে। আর আপনি তা শুনেন রসিয়ে
রসিয়ে। তার মুখে দু ‘খিলি পান দেন
ঢুকিয়ে নিজেও খান পান দু ‘খিলি।
কার বউ কার সাথে করে ফষ্টিনষ্টি
আপনাকে কত রকমের দেয় ফিরিস্তি।
কার ছেলেটা বাপ মায়ের অমতে কার মেয়েকে
করেছে বিয়ে শুনতে লাগে বেশ চমৎকার।
মেয়েটার বিয়ের বয়স গেল চলে কে করবে
বিয়ে? তাঁকে নিয়ে করে কতই না মশকরা হাসি ঠাট্টা।
কার মেয়েটা জামাইকে দু’ঘা লাগিয়ে এসেছে
ফিরে বাপের বাড়ী, সে মেয়েটা ভাই বউদের
করে কত জ্বালাতন মাকে রাখে পেরেশানিতে।
বউ চলে গেল আরেক বউ এলো ঘরে সে করে
কেমন তাও শুনায় আপনাকে। আপনিও শুনেন
আর শুনেন। হন পুলকিত চমকিত আনন্দে আত্মহারা।
ওদের কাজ হল এ-কথা সে-কথা কুকথা শুনিয়ে আপনার
কাছ থেকে দু’টুকরো মাছ, গরু বা মুরগীর গোস্ত,
এক পেয়ালা শাক বা সবজী সঙ্গে আরও কিছু নিয়ে যাওয়া
তার ঘরে থাকা স্বামী ছেলে মেয়ের জন্য। তাছাড়া
একটা খালি হয়ে হয়ে আসা পাউডারের ডিব্বা
স্নো ক্রিম লিপস্টিক নেয়া তার মেয়েটার জন্যে
যে এগুলোর জন্য ধরেছে বায়না। বেচারি পারে না
কিনে দিতে। আপনাকে তো পটাতে হবে তাই না !
আপনাকে এনিয়ে বিনিয়ে হাছা মিছা কথা মিশিয়ে
বলে ফায়দা নেয় লুটিয়ে। তার যে নেই এসব কেনার
অর্থ আর সামর্থ্য। কিন্তু সাধ-আহ্লাদ কি আর মানে
গরীব দুঃখীর দুঃখ। অসহায় এরা তাই আপনাকে
যে এতো কথা বলে অন্যের ঘরের। আপনি শতভাগ
কি নিশ্চিত আপনার ঘরের কথা সে বলেনা অপরকে।
আপনার ঘরে মাঝে মধ্যে ঘটে যাওয়া অতি স্বাভাবিক কিছু
ঠুনকো দাম্পত্য কলহের কথা, আপনার ছেলেটা যে নেশা
করে, চাঁদাবাজি করে বা খুব ভালো একটা ছেলে অথবা
আপনার নিষ্পাপ মেয়েটার কথা। আরে বইলেন না
আপা ঐ বাড়ীর মেয়েটার কি যে ডাঁট মানেনা মা বাপ।
আপনার পোলাপান বড়ই সভ্য আর ভদ্র রেখেছে আপনাগো
সম্মান ইজ্জৎ। আপনিও হয়ে উঠেন আনন্দে খুশিতে বেশ গদগদ।
কারে করেন বিশ্বাস, দেখুন ভেবে একবার নয় বার বার।

ছবিঃ নেট থেকে সংগৃহীত।

 

৩৪৯জন ২০৪জন
3 Shares

১৮টি মন্তব্য

মন্তব্য করুন

ফেইসবুকে সোনেলা ব্লগ

লেখকের সর্বশেষ মন্তব্য