সোনেলা দিগন্তে জলসিড়ির ধারে

কলমী ঈশ্বর (মহারাজ সমীপে)

অনন্য অর্ণব ৩ সেপ্টেম্বর ২০২১, শুক্রবার, ০৩:৪৮:০৬অপরাহ্ন একান্ত অনুভূতি ২১ মন্তব্য

 

অবশেষে শেষের কবিতাও শুরুতেই সান্ধ্যব্রত মাগে –
পথের সন্যাস পথ ভোলে কুহেলী কুয়াশা মেখে,
দায় ঠেলে মুখ ফেরাতে চায় আলোকের পানে – অদ্ভুত
ব্রত ভুলি বলে সব অসতী আলেয়ার খেল
অনির্বাণ- তোমার মাস্তুলের নিশানা কি আজ হেরফের ।

তোমার পদযাত্রা পথের ধূলিতে হবে ম্রিয়মান-
এ আমার বোধগম্য নয়,
অগ্ন্যুৎপাত বন্ধ হতে পারে তবে অগ্নি অক্ষয়
তুমি বর্ষমান ফল্গুধারা- মহাকালের অবিনশ্বর স্মৃতির পাতায়।

যেখানে আলো আছে, আছে বারুদের গোলাঘর
শূন্য রিক্ত হাতে এসেছিলাম- করে দিলে সিক্ত সজল
তারপর দখিনা পবনে পাল তুলে চলে গেছে সুদীর্ঘ সময়
অন্তরীক্ষে নীলের ছড়াছড়ি- নীল পুষেছি আমি ও আমরা
বিউগলে করুণ অথচ প্রশান্তির তরঙ্গ রাশি
তুমিই মহারাজ তুমিই এ তল্লাটে অদ্বিতীয় কলমী ঈশ্বর ।

কেউ কেউ দূরত্ব টানে বর্ণ শব্দ চরণে, দূরত্ব টানে সবিনয়ে
সংগোপনে, প্রিয়সময় প্রিয়মুখ প্রিয় প্ল্যাটফর্ম ছেড়ে
সরে যায়- সুদূরে হারায় অথচ ক্লান্তির আঁচলে ঢেকে –
সতীর্থের দুঃসহ রোদন, তোমাকে চাই হে শব্দ খেলার ঈশ্বর
আমি ও আমরা কেবল তোমাকেই চাই –
কথা দাও কখনো তুমি আমাদের ছেড়ে যাবেনা ।

ফটো : Sushma_Sadaf

১৭৭জন ৬জন
0 Shares

২১টি মন্তব্য

মন্তব্য করুন

ফেইসবুকে সোনেলা ব্লগ

লেখকের সর্বশেষ মন্তব্য