সোনেলা দিগন্তে জলসিড়ির ধারে

করোনারে ভালোবেসেছি

আরজু মুক্তা ১১ আগস্ট ২০২১, বুধবার, ০৯:০২:১৪অপরাহ্ন রম্য ২২ মন্তব্য

আমাদের বাড়িওয়ালী পান স্পেশালিষ্ট। পান ছাড়া তার চলে না। কিন্তু এখন কড়াকড়ি। বাসায় মাস্ক পরে থাকতে হবে। বেচারির হয়েছে জ্বালা। পানের পিক ফেলতে গিয়ে ; হাত ধোয়ার সাথে সাথে মাস্কও ধুচ্ছেন। কিছু করার নাই। মাস্ক পরেই সংসার সামলাচ্ছেন চাচী। টিভিতে দেখেছেন, ইউনেসেফ বলছে, বাসায় থাকলে কাপড়ের মাস্ক পরতে হবে। বাহিরে গেলে কাপড়ের মাস্কের সাথে সার্জিক্যাল মাস্ক। আর করোনা হয়েছে এমন রোগির সামনে এন 95 মাস্ক। আড় চোখে দেখি, ধ্যাত্তেরি বলে মাস্ক ছুঁড়ছেন পেঁয়াজের ডালাতে।

বাড়িওয়ালা চাচা। সারাক্ষণ আছেন চেঁচামেচিতে, হাত ধোও, হাত ধোও। অথচ সারাক্ষণ নাকের ময়লা দলা পাকাতে ব্যস্ত। নিজের হাত ধোয়ার চেয়ে তার চেয়ার ঝাড়াই পছন্দ।

বাড়িওয়ালার মেয়ে, হেভি চটপটে। আমাদের বলে, ” ভাবি বেড়াতে আসেন না যে?  আমরা বলি, মাস্ক পরে গল্প জমে না। মেয়েটি বলে, ভাবী আমরা তো এখন বাহিরে যাচ্ছি না। বাড়িতেই থাকি। আপনারা হ্যান্ড স্যানিটাইজ করবেন ; তাহলেই হবে। বিকেলে সবাই আড্ডায় বসলাম। মেয়েটি বলে, কেমন একটা আঁশটে গন্ধ। আমি বললাম,  এটা তো হ্যান্ড স্যানিটাইজের গন্ধ। মেয়েটি বলে, আপনারা যান। আমার বমি লাগছে।

গরুর দুধে আমরা এতোটাই ভেজাল মিশিয়েছি যে : গরু ঈশ্বরের কাছে করজোড়ে বিচার চেয়েছিলো। তাইতো, তিনি অভিশাপ দিলেন, ” টিকা নিলেও নিজের সুরক্ষায় মাস্ক পরতেই হবে।  মানুষকে সালাম দেয়া ভুলে গেছো ?  কথাও বলতে চাও না !  একে অপরের খোঁজ নিতেও ভুলে যাও। এবার সব বন্ধ। নাস্তা খাওয়াও বন্ধ। ”

এবার কি আর করা !  সামলিয়ে চলি। ভ্যাকসিন নিলেও মাস্ক পরি। হাত ধুই। সামাজিক দূরত্ব মেনে চলি।

৩৬৬জন ৫১জন
43 Shares

২২টি মন্তব্য

মন্তব্য করুন

ফেইসবুকে সোনেলা ব্লগ

লেখকের সর্বশেষ মন্তব্য