-বড্ড অসময়ে এসে তুমি আমি মুখোমুখি
~অসময়! কিসের অসময় কবিতা?
-তুমি আমি আমাদের বসত, উত্তর মেরু দক্ষিণ মেরু শতত!
~ভালোবাসা কী কেবল উত্তর মেরু কিংবা দক্ষিণ মেরুতে সীমাবদ্ধ? ভালোবাসাকে কী কখনো কোনো সীমান্তের কাঁটাতারে আবদ্ধ করে রাখা যায়?
– কাঁটাতারে হয়তো আবদ্ধ করা যায় না কিন্তু একটা সময়ের পর ভালোবাসার পায়ে শেকল দিতে হয়।
~ভালোবাসা সময় অসময় বোঝে না। যখন ইচ্ছে আসে ভালোবাসা উড়ন্ত প্রজাপতির নয় যে কাঁটাতারে এসে আটকে যাবে। ভালোবাসা দুরন্ত গাঙচিল যে সমস্ত সীমারেখা অতিক্রম করে ঠিকই পৌঁছে যাবে তার আপন নীড়ে।
-যে অজস্র কথার জন্ম দেয় তার সাথে কথায় পেরে উঠেছে কে কবে! যে আমি পারবো

~প্রসঙ্গ এড়িয়ে যেতে চাইলে যাও। শুধু এটুকু বলো না বড্ড অসময় আমাদের। আমি সময় অসময় বুঝি না, বুঝতেও চাই না। আমি শুধু ভালোবাসতে চাই খুব ভালোবাসতে চাই।
-ভালোবাসায় বড্ড ভয় আমার। ক্ষণিক পেয়ে হারিয়ে ফেলার যন্ত্রণার চেয়ে না পাওয়া অনেক আনন্দের, অনেক শান্তির আমার কাছে।
~হারিয়ে ফেলার কথা আসছে কেনো কবিতা?
-আমি যে বড্ড অপয়া অলক্ষী! ভালোবাসা আমার সয় না।
~এভাবে বলো না কবিতা। দোহায় তোমার এসব বলে সুন্দর সময়টা নষ্ট করে দিও না।
-হুম।
~শুধুই হুম! আজ অন্তত এভাবে অবজ্ঞায়/অবহেলায় দূরে সরিয়ে রেখো না কবিতা। জানো কবিতা আমি তোমাকে সেই প্রথম দিন থেকেই চেয়েছি। কিন্তু তুমি বার বারই আমাকে অবজ্ঞা করে দূরে সরিয়ে রেখেছো।
-আমিও তোমাকে চেয়েছি, সেই শুরু থেকে চেয়ছি। কিন্তু কখনো বলার সাহস হয়নি।
~আমি বাঘ নাকি ভাল্লুক যে সাহস করে মনের কথা বলতে পারোনি? কিসের এতো ভয় তোমার কবিতা
-ভয় ছিল তোমাকে হারিয়ে ফেলার। যদি আমার থেকে মুখ ফিরিয়ে নাও সেই শঙ্কায় আর কিছু বলা হয়ে উঠেনি।
~যদি তোমাকে ভালোবাসতে না পারতাম, যদি তোমার মাদকতা আমায় আকৃষ্ট না করতো তবে সুন্দর করে বুঝিয়ে দিতাম। মুখ ফিরিয়ে নিতাম না।
-আমি যে হারতে জানিনা, তুমি ফিরিয়ে দিলে সেটা সইতে পারতাম না।
~এই ধ্যান ধারনা থেকে বের হও কবিতা। শুধু নিজেকে প্রাধান্য দেওয়া কোনো কাজের কথা নয়।
-সে আমি জানি, বুঝি। তবুও পারি না নিজেকে শোধরাতে
~তুমি তো অবুঝ নও কবিতা। তবে এমন ছেলে মানুষী কেনো করো? তোমাকে মানায় না এসব।
-জানো, ভালোবাসায় মানুষের বড্ড লোভ! একটু ভালোবাসা পাওয়ার লোভে মানুষ হয়ে যায় পতঙ্গ। ক্ষীণ দৃষ্টি-সম্পূর্ণ পতঙ্গ যেমন, অধিক আলোর প্রতি আকৃষ্ট হয়ে,দিগ্বিদিক জ্ঞানশূন্য হয়ে ছুটে যায় মরণ ফাঁদে! মানুষও ঠিক তেমনই একটু ভালোবাসা পাওয়ার জন্য নিজের অবস্থান ভুলে গিয়ে, অন্ধমোহে আকৃষ্ট হয়ে ছুটে চলে ভালোবাসা নামক ভয়াবহ মরণব্যাধির পিছু!

~এতো কিছু ভেবে এই সুন্দর মূহুর্ত নষ্ট করতে চাই না। এসো কাছে, বসো পাশে চলো ভালোবাসা-বাসিতে এই সুন্দর সময়টাকে বন্দী করি স্মৃতিতে।
-কী হবে স্মৃতি পুষে। সেই তো আমাকেই ভুগতে হবে।
~কষ্ট শুধু তুমি একাই পাও কবিতা! আর কেউ পায় না যন্ত্রণা?
-আর কারো হয় বুঝি কষ্ট! তাহলে সে দূরে থাকে কী করে?
~কোথায় সে দূরে থাকে? সে তোমার সাথেই থাকে পাশেই থাকে। তুমি তাকে অনুভব করতে পারো না সে তোমার অপারগতা!

৩৩জন ১২জন
0 Shares

১০টি মন্তব্য

মন্তব্য করুন

ফেইসবুকে সোনেলা ব্লগ

লেখকের সর্বশেষ মন্তব্য