এক –

বললে তুমি,
ভালোবাসতে পারোনা।
আর আমি,
ভালোবাসা ছাড়া আর কিছুই পারিনা
বেঁচে থাকার জন্য এই দুটো পথ;
যে পথে তুমি যেতে চাওনা,
আর আমি ফিরতে জানিনা।

দুই –

একদিন হঠাৎ আড়াল থেকে উঁকি দিয়ে এসে বললাম, টুক্কি!
তুমি বললে, বাচ্চামো আর গেলোনা!
আসলে কি জানো তোমার সাথে লুকোচুরি খেলায় জিততে চাই বলেই তো আজও বড়ো হয়ে উঠিনি শৈশব
আজন্মকাল দুরন্তপনার মাইলফলক হিসেবেই থেকে যাবো।

তিন –

কর্পূরের মতো উবে যায় সময় কেমন করে!
বিকেলের রোদকে সন্ধ্যার অন্ধকার গ্রাস করে নেয় পলকেই;
দিন-রাত ক্রমশ ছোট হয়ে যাচ্ছে,
A journey through time, হা হতোস্মি!
হাসি পাচ্ছে!
মধ্যবিত্ত বয়সের পালকীতে মাথা নুয়ে বসে আছে দুরন্ত তারুণ্য—
ঠিক এই সময়ের জন্য একটা কবিতা খুঁজে বেড়াচ্ছে চোখ।

চার –

নীলকুরিঞ্জি ফুলের মতো যদি জীবন হতো, বেশ হতো!
ছিন্নভিন্ন সময়ের সাথে দিব্যি লুকোচুরি খেলা চালিয়ে যাওয়া যেতো আজন্ম।
আমাকে তুমি খুঁজতে, সে খুঁজতো,
কতো কতোজন, কতো কতোকিছু অপেক্ষায় থাকতো শুধু আমার জন্য।
“বৃত্ত”কে বুড়ো আঙ্গুল দেখিয়ে ফিরে ফিরে আসতাম বারো বছর পর পর;
কী দারুণ হতো, তাই না?
এসবই ভাবছে এই সপ্তদশী মন, চোখে দুষ্টু হাসি মাখিয়ে।

🙋এই লেখাগুলো কোনোটাই এখনকার নয়। প্রথমটি ছাড়া অন্য তিনটিই গত বছরের। তাই তারিখ উল্লেখ করলাম না।❄

৫০৭জন ৫০৬জন
0 Shares

২০টি মন্তব্য

মন্তব্য করুন

লেখকের সর্বশেষ মন্তব্য

সাম্প্রতিক মন্তব্যসমূহ

ফেইসবুকে সোনেলা ব্লগ