এক লক্ষ কল্লা

সিকদার সাদ রহমান ১১ জুলাই ২০১৯, বৃহস্পতিবার, ০৭:০৩:০৬অপরাহ্ন সমসাময়িক ১০ মন্তব্য

 

পুরা ফেইজবুক টাই কল্যাময়। ভাড়ামি বা এড়েমির একটা সীমা আছে। মানুষ পারেও! কোন একটা হুজুগ পেলেই তার পিছনে আন্দাজে দৌড়াবে। যদিও এ এচরিত্র বাংগালীদের নতুন নয়। হয়তো অনেকেই শামছুর রহমান এর “পণ্ডশ্রম” (কান চিলে নিয়েছে চিলে) কবিতাটা পড়েছেন। বাস্তবেও এরকমটাই হচ্ছে আজকাল।কোথাকার কান, কোথাকার মাথা!

পুরো ফেইজবুক কল্যা কাটার পোষ্ট এ ভেসে যাচ্ছে। অথচ আমার পরিচিত কিংবা ফেইজবুকের কারো পরিচিত কিংবা তাদের পরিচিত কারোরই কল্লা বিচ্ছিন্ন ভাবে পাওয়া যায় নাই। এর মধ্যে কিছু কিছু পোষ্ট এ গলা কাটা কল্লার ছবি বিভৎস ভাবে দেয়া হয়েছে। সেখানে জিজ্ঞেস করলে বলে ভাই ফেইজবুক থেকে নিয়েছি। জনমনে আতংক ছড়িয়ে কি লাভ পাচ্ছে কোন বিশেষ গোষ্ঠী তা মাথায় আসে না।

এর মধ্যে কয়েক যায়গায় শুরু হয়েছে ধরপাকড়। খবর পাওয়া যাচ্ছে বিভিন্ন যায়গায় অপরিচিত লোক দেখলেই সন্দেহ করা হয়। ক্ষেত্র বিশেষ গায়ে হাত, শারীরিক ভাবেও লাঞ্চিত করা হয়। এরই মধ্যে ঝালকাঠি, বরিশাল, নোয়াখালী এলাকায় ছেলে ধরা সনাক্ত করেছে সাধারণ জনগন। ইনবক্সে বিভিন্ন প্রকার ম্যাসেজ পাঠাচ্ছে বিভিন্ন আইডি থেকে। একজনের এস এম এস রীতিমতো ভয়ংকর। লিখেছেন “ছেলেধরা পেলে পুলিশে দেবেন না, পিটিয়ে মেরে ফেলুন”! সত্যি ভয়ংকর পরিস্থিতির মধ্য দিয়ে যাচ্ছি।

কারা গুলো রটাচ্ছে? কারা ফেইজবুকে কাটা মাথার ছবি ছেড়েছে? কারা ইনবক্সে প্রধানমন্ত্রীর নাম দিয়ে টেক্সট পাঠিয়ে জনগনকে বিভ্রান্ত করছে? কারা বলছে পদ্মা সেতুতে ১ লক্ষ মাথা লাগবে? নতুন নতুন গ্রুপ খুলে এই সকল বিভ্রান্তি মূলক পোষ্ট কারা করে বেড়ায়?

তাদের সকলকে চিহ্নতি করা হউক। আইনের আওতায় আনা হউক। তাদের উদ্দেশ্য প্রকাশ করা হউক। জনমনে আতংক সৃষ্টি কারি, সমাজের শান্তি শৃঙ্খলা বিনাশ কারি সেই সব ভূত গুলোকে শাস্তির আওতায় আনা হউক।

১০-০৭-২০১৯

১২১জন ১জন
3 Shares

১০টি মন্তব্য

মন্তব্য করুন

লেখকের সর্বশেষ মন্তব্য