এক দুই টাকার প্রশ্নে দেশ ব্যাপী আলোচনার বন্যা…………
চিন্তায় অস্থির সবাই।পাঁচ টাকার নীচে তাহলে কোন পন্য থাকছে না।১ টাকা, ৩ টাকা, ৪টাকা, ১১ টাকা,১৪ টাকা,১৯ টাকার মুল্যের পণ্য কিভাবে কিনবে এমন প্রশ্নও দেখেছি অনেকের লেখায়।
কারো কারো লেখায় এমন ধারনাও হয়েছে,তারা ১ বা ২ টাকা বস্তায় নিয়ে বেড় হন রিক্সা ভাড়া বা বাজার করতে।
কাগুজে ১ টাকার নোট কবে দেখেছি মনে নেই, তবে স্মৃতিতে আছে যে,অত্যন্ত ছেড়া, মলিন একটি এক টাকার নোট অনেক আগে দেখেছিলাম যা থেকে মাছের গন্ধ আসে। এক টাকার পরিবর্তে অনেক সময় দোকানদার একটি চকলেট হাতে ধরিয়ে দেন,এমন অভিজ্ঞতা অনেকেরই আছে। দুই টাকার কাগুজে ভালো নোট এর অবস্থাও তেমন। এই যে মলিন,ছেড়া ফারা টেপ দিয়ে জোড়া লাগানো কাগুজে নোট কেন থাকতে হবে?

অর্থমন্ত্রী ৫ টাকার নীচের মুদ্রা তুলে নেয়ার ঘোষনা দিয়ে আবার তা প্রত্যাহার করেছেন। আবুল আল মুহিত নামের কারনে ইনি আবাল মন্ত্রী নামেও অবহিত। বিভিন্ন ব্যাংকের অর্থ আত্মসাতে তার প্রতিক্রিয়া মাত্র চার হাজার কোটি,মাত্র ছয় হাজার কোটি টাকা আত্মসাত হওয়া বা শেয়ার কেলেংকারী সম্পর্কে তার মন্তব্যের কারনেই মুলত তিনি আবাল হিসেবে অবিহিত হয়েছেন। তার ঘোষনায় যদি কাগুজে নোট প্রত্যাহার করা হবে,ধাতব মুদ্রা বহাল থাকবে এমন থাকতো,তাহলে ভালোই হতো বলে আমি মনে করি।

বিভিন্ন কেনা কাটায়,ভাড়ায় এক দুই টাকার হাত বদল বেশী হয় বলে কাগুজে মুদ্রা নষ্ট হয় বেশী।
১ টাকার দ্রব্য কিনবেন ? ৫ টাকার কাগুজে নোট দিন দোকানদারকে। দোকানদার আপনাকে ২ টাকার দুইটা ধাতব নোট ফেরত দেবেন। ১৪ টাকায় আধা কেজি বেগুন কিনবেন ? দোকানদারকে ১৫ টাকা দিন, তিনি আপনাকে ১ টাকার ধাতব মুদ্রা ফেরত দিবেন।

অভিজ্ঞতাঃ
বিদেশে খুচরা হিসেবে ধাতব মুদ্রার প্রচলনটাই বেশী। ১ ডলার, ২ ডলার এমনকি ১ সেন্ট পর্যন্ত পাওয়া যায়। কেনা কাটা বা ভাড়া দেয়ার পরে পকেটে বা ব্যাগে জমে যাওয়া ধাতব মুদ্রা দিয়ে যখন কোন কিছু পরিশোধ করি, গ্রহিতা তখন ব্যাপক খুশি হন।
আমাদের দেশেও ১,২ টাকার পাশাপাশি ১ পয়সার ধাতব মুদ্রার ব্যাপক প্রচলন হওয়া উচিত। নইলে ৯৯ টাকা ৯৯ পয়সার পরিবর্তে ১০০ টাকাই দেবো আমরা। উন্নত এবং আধা উন্নত দেশে এই পয়সাও ফেরত পাওয়া যায়।

অর্থমন্ত্রী যে সিদ্ধান্ত নিয়েছিলেন তা আবার পরিবর্তন করেছেন।আমরা বিভিন্ন প্রতিক্রিয়ায় তার এই সিদ্ধান্তকে নিয়ে উপহাস করেছি। কিন্তু কেউ ভিন্ন আঙ্গিকে চিন্তা করিনি। অন লাইনে চিন্তা সাধারনত একদিকেই প্রবাহিত হয়,চিন্তার ফ্লো একমুখি হয়।ার এটি সংক্রামক রোগের মত। দ্রুত ছড়ায়। ১,২ টাকার কাগুজে নোট বাতিল করে ধাতব মুদ্রা বহাল রাখার সিদ্ধান্ত হলে ভালোই হতো বলে আমার ধারনা।

লেখার ধারনাটি এসেছে ব্লগার সাইদ মিলটনের ফেইসবুক স্ট্যাটাস পড়ে 🙂 সে হিসেবে লেখাটির মুল কৃতিত্বের দাবীদার সাইদ মিলটন।

১০২৮জন ১০২৮জন
0 Shares

৫৭টি মন্তব্য

মন্তব্য করুন

লেখকের সর্বশেষ মন্তব্য

ফেইসবুকে সোনেলা ব্লগ