ছাগুতা এবং মানবতা

জিসান শা ইকরাম ২৬ সেপ্টেম্বর ২০১৩, বৃহস্পতিবার, ১০:১৯:০৪অপরাহ্ন একান্ত অনুভূতি, সমসাময়িক ১৫ মন্তব্য

ছাগুতা এবং মানবতা একসাথে যায় না । মানুষের চিন্তা এবং চেতনা্র মাঝে যখন ছাগলের চিন্তা চেতনা প্রভাব বিস্তার করে  , তখন ছাগুতা বৃদ্ধি পায় এবং মানবতা কমতে থাকে । মানবতা যখন শুন্যের কাছাকাছি চলে আসে , তখন মানুষটি একটি উৎকৃষ্ট এবং উন্নত প্রজাতির ছাগলে রূপান্তরিত হয়। ছাগুতার জয়গান হয় তার মুখ্য কর্মধারা । সব কিছুকেই সে তখন ছাগুতা দিয়ে বিচার করে।

কথা হচ্ছিল লীগের সাফল্য এবং ব্যর্থতা নিয়ে একজন বীর মুক্তিযোদ্ধার সন্তানের সাথে । যিনি বিগত বিএনপি সরকারের সময়ে একটি প্রাইমারী স্কুলের শিক্ষক ছিলেন । ঐ সময়ে জেলা শহরে অবস্থিত সরকারী উচ্চ বালক/বালিকা বিদ্যালয়ে শিক্ষক নিয়োগ পরীক্ষায় তিনি অকৃতকার্য হয়েছিলেন শুধুমাত্র মুক্তিযোদ্ধা সন্তানের কোটায় আবেদন করেছিলেন বলে। বর্তমান সরকারের সময়ে মুক্তিযোদ্ধা সন্তানের কোটায় তিনি ঐ পদে নিয়োগ পান । এমনিতেই তিনি বেশ ভালো ছাত্র । কোটা ব্যতীতই তিনি চাকরী পেতেন – কারন লিখিত এবং মৌখিক উভয় পরীক্ষায় তিনি সব প্রশ্নের উত্তর দিয়েছেন – দুই সরকারের আমলেই। নিয়োগ প্রাপ্তির পরে খুব খুশির সাথে জানিয়েছন আমাকে । আরো জানিয়েছিলেন ” হাসিনা সরকার প্রতিবন্ধি শিক্ষক নিয়োগ দিয়েছেন অনেক , আমাদের স্কুলেও ২ জন , এটি শেখ হাসিনা খুব ভালো করেছেন ” ।

আমি যখন তাঁকে লীগ সরকারের ভালো এবং মন্দ দুটোই বলছিলাম , তিনি শুধু বলছিলেন মন্দ কাজের কথা । হাসিনা কোন ভালো কাজ করেননি এই হচ্ছে তাঁর সর্বশেষ অবস্থান ।
আমি যখন বলি ” শেয়ার কেলেংকারী , হলমার্ক কেলেংকারী , ছাত্রলীগের কিছু সন্ত্রাসের পরেও এটি স্বীকার করতেই হবে যে দেশের মানুষ এখন কেউ অভাবে নেই । তাঁদের অভাব এখন সুখ সাচ্ছন্দের।
কিস্তিতে কালার টিভি কিনছে একদা গরীব মানুষ গুলো , গ্রামের বাজারে এখন ইলেক্ট্রনিক্স পন্যের শো-রুম ।
সবার কাছে বলতে গেলে এখন মোবাইল আছে ।
দেশের মানুষের গড় আয় গত পাঁচ বছরে  প্রায় দিগুন বৃদ্ধি পেয়ে ১০৪৫ মার্কিন ডলারে দাড়িয়েছে ।
৩০ ডিসেম্বরের মধ্যে স্কুলের সমস্ত ছাত্র ছাত্রীদের কাছে বিনামুল্যে বই পৌঁছে যাচ্ছে । আগে মার্চের আগে বই পাওয়া যেত না। উচ্চ মুল্যে তা কিনতে হতো ।
অব্যাহত জনসংখ্যা বৃদ্ধি এবং নগরায়নের ফলে চাষ যোগ্য জমির পরিমান কমলেও খাদ্যে স্বয়ংসম্পূর্ণ দেশ ।
বিদ্যুত উৎপাদন দ্বিগুণ হয়েছে ।
আদম ব্যবসায়ীদের নির্যাতন ছাড়াই কয়েক লাখ মানূষ বিদেশে গিয়েছে , সবচেয়ে বেশী রেমিটেন্স পাঠাচ্ছেন তাঁরা ।
দেশের বৈদেশিক মুদ্রার রিজার্ভ অতীতের রেকর্ড ভেংগেছে ।
কয়েকলাখ শিক্ষকদের চাকরী জাতীয়করণ করেছে  ( রেজিঃ স্কুল ) ।
যুদ্ধাপরাধীদের বিচারে অনেক দূর এগিয়েছে , রাজাকার শ্রেষ্ঠদের জেলে রেখেছে । ” —– এমনি আরো কিছু কথা ।

আমার কথা গুলোর পাল্টা কথা তিনি শুনালেন এভাবে
” হাসিনা কি সবাইকে টিভি কিনে দিয়েছে ?
সবাইকে মনে হয় হাসিনা মোবাইল কিনে দিয়েছে ?
গড় আয় হচ্ছে ভুয়া একটা বিষয় , এসব হচ্ছে হাসিনার কারসাজী
স্কুলে যে বই দিচ্ছে তার মাঝে অনেক ভুল
খাদ্যে স্বয়ংসম্পূর্ণতো কৃষক করেছে , হাসিনা কি চাষ করেছে নাকি ?
মানুষ বিদেশ গিয়েছে নিজদের টাকা খরচ করে , হাসিনা কি মধ্যপ্রাচ্যে গিয়ে একটা টাকা পাঠিয়েছে ?
আমি একজন শিক্ষক , আমাদের জন্য কি করেছে ?
রাজাকারদের বিচার করতেই হবে কেন এত বছর পর ? জাতিকে বিভক্ত করছে হাসিনা । ”

এরপর তাঁর সাথে আর কথা বাড়াইনি , বৃথা সময়ের অপচয় করতে আর ইচ্ছে হয়নি। ভুলে গিয়েছে সে , তাঁর জন্য হাসিনা কি করেছে । অকৃতজ্ঞ মানুষদের আল্লাহ্‌ পছন্দ করেন না । আমি একজন মুসলিম । আল্লাহ্‌ যা পছন্দ করেন না , আমি কেন তা করবো ?
দীর্ঘ ৬ বছরের সম্পর্ক ছিন্ন করলাম । অনেক কষ্ট হচ্ছে এই দীর্ঘ সময়ের তাঁর আর আমার সম্পর্কের সোনালী মুহূর্ত গুলোর জন্য । যা এখন অতীত ।

লেখাটি উৎসর্গ তাকেই করলাম , যিনি ছিলেন এক সময়ে আমার খুব কাছের । যার মানবতা এখন ছাগুতার কাছে পরাভুত।

১৬৯জন ১৬৯জন
0 Shares

১৫টি মন্তব্য

মন্তব্য করুন

ফেইসবুকে সোনেলা ব্লগ

লেখকের সর্বশেষ মন্তব্য