একাগ্র প্রতীক্ষা

সালমা আক্তার মনি ২২ মে ২০১৯, বুধবার, ০৪:১৩:১৪পূর্বাহ্ন কবিতা ৭ মন্তব্য

সেদিন আলোর রংটা ছিল ভারি অদ্ভুত,
কেমন যেন ভালবাসা মাখামাখি ছিল।
হঠাৎই বললে আয় দু’জন ভালবাসার বৃক্ষ হই।
সব্বার চোখ ফাঁকি দিয়ে দু’জনে একসাথে থাকা যাবে। বেশ তাই হোক তবে।
তারপর কতকাল গত হয়ে গেল।
একাগ্র মৌনতায় একাকী বৃক্ষ হয়ে রইলাম,এতটা কাল;
এমন নিমগ্নতার নামই তো ‘নারীর প্রেম’।
কি আশ্চর্য তুমিতো থাকোনি।
আমার পাতার উপরে সূর্যের সোনালী
রোদেরা খেলা করে গেলো।
আমার আঁচলের সমস্ত রঙ প্রজাপতি কেড়ে নিলো।
নিটোল নিখাদ প্রেমের সত্তাটাতে আমার মরচে পড়ে গেল;
তুমি এলে না,
আচ্ছা, একবারও ইচ্ছে হয়নি তোমার!!
ইচ্ছে হয়নি দেখে যেতে কেমন ডালপালা ছেড়েছি আমি।
কেমন বিরহের কালসিটে পড়েছে আমার গায়ে।
আমার মেঘের মত ঘন কালো চুল,
কাশের দুধ সাদা দু’পাটি ঝকঝকে দাঁত,
তোমার পানে অপলক চাওয়া চোখে
কাজলের ব্যাকুলতা।
সেই আলো জ্বলা চোখ একদিন ভাষাহীন হলো।
তবু তুমি হাসিতে বিদ্রুপে বলে গেলে-
যাক আরো কিছুদিন,এখনো হয়নি সময়;
গ্রহনের কালো ক্ষন আরো কিছু বাকি।
রক্তে, লাবণ্যে বিরহ ফেলুক আরো কিছু ছাপ,
তারপর ঠিক দেখা হবে!

বড় সাধ ছিল একবার কনে দেখা রঙে
কপাল রাঙাবো।
ভেবেছি একখানা লালটিপ পেলে,
যতন করে তোমার চোখের দুয়ার ছোঁব।
অপরাজিতার চেয়ে খুউব আদুরে-
এক আশ্চর্য হবো;
চিরচেনা বিদ্রুপে বলে উঠলে তুমি,
“এরপর দেখা হবে যেদিন-
আহ্লাদের লালটিপ নিয়ে আসবো ঠিকই।
এনে দেবো ঠিকই আবির লাল মাছরাঙা চোখে তোর।
দেখিস বেদনায় বদলে দিস না ছুঁয়ে।
বেদনার নীলকে ডানা মেলে আমৃত্যু তুমুল উড়িয়ে দিস, বুঝে নিস সবটুকু রঙ।”

বিশ্বাস করো এমন তাচ্ছিল্যেও হৃদয়
কেঁপেছে আশ্চর্য রোমাঞ্চে।
ভেবেছিলাম তুমি খুব কাছে আসবে।
বাম অলিন্দে ফুটন্ত রক্তের তুফান ডেকেছে। ভেবেছিলাম বলবে-
হে নিমগ্ন প্রেয়সী আমার-
আয় এই বার তবে গ্রহনের কাল সাঙ্গ করি।
বলবে তোমারও একাকিত্বের রাত ছিলো কালো,
বলবে আয় এই বার তবে বুকের বা’পাশের
পুরোনো চিনচিনে ব্যথাটাকে বিদেয় করে দেই।
বলবে আয় ব্যথাকাল শুরুর আগের-
রঙগুলো ফিরে আনি জীবনে।
বেদনা সরিয়ে ফিরানো সেই রঙে
বসন্ত বাসর সাজিয়ে দিই কপালে তোর।
অথচ এসবের কিছুই বলো নি তুমি।

আমার কল্পনার সব রঙ গেল গ্রহনের গ্রাসে।
বুকের গহীনে জাগা প্রেম গেল মরা গাঙে।
আমার যৌবনের নাম হলো ‘সর্বনাশা ‘।

অথচ কি অদ্ভুত প্রতীক্ষায় আমি এখনো-
বুকের পাঁজরে বাড়ি বানাই, বৃক্ষ সাজি।
দিন ঘুমায় গিয়ে রাতের গভীরে।
পাহাড়ের কোলে হারায় ঝর্ণার প্রেম।
নিঃশর্ত সখ্যতায় মাতে চাঁদ তারাদের সাথে।
অনন্ত প্রেমোপখ্যান লেখে নদী ও সাগর।
অথচ আমার হৃদয় পল্লবে এখনো পাখিরা বসেনা।
কেউ নেই বলার ‘শুধু তোকেই,তোকেই ভালবাসি খুব ‘।
শুধু এই একটি কথা শুনবার প্রতীক্ষায়
আমি একাগ্র থাকি বৃক্ষের মত অনন্তকাল।

৫১৩জন ৪৩৪জন
11 Shares

৭টি মন্তব্য

মন্তব্য করুন

লেখকের সর্বশেষ মন্তব্য

ফেইসবুকে সোনেলা ব্লগ