j

দেশ জুড়ে নানা সহিংসতা আর অস্থিতিশীল রাজনৈতিক অবস্থার কারণে দেশের মানুষ প্রধান দুই রাজনৈতিক দল এবং এরশাদ কাকুর উপর তিক্ত বিরক্ত ।

দেয়ালে পিঠ ঠেকলে যেমন বাধ্যতামূলক ভাবে সামনে অগ্রসর হতে হয় , জনগণের অবস্থা অনেকটা সেই রকম ।

তারা বাধ্য হয়েই দেশের তিন প্রধান কে দৌড়ানি দিয়েছে ।

জনগনের দৌড়ানি খেয়ে হাসিনা খালা , খালেদা ম্যাডাম এবং এরশাদ কাকু গহিন জঙ্গলে দৌড়াচ্ছেন আর ঈশ্বর কে স্মরণ করছেন । তাঁদের ডাকাডাকিতে ঈশ্বর আর অন্তরিক্ষে থাকতে পারলেন না পৃথিবীতে নেমে এলেন ।

তিনজনের সামনে ঈশ্বর দেখা দেখা দিলেন । বৎস তোমাদের প্রার্থনায় আমি তুষ্ট হয়েছি । এখন তোমাদের তিনজনের একটা করে মনের ইচ্ছা আমি পূরণ করব ।

দৌড়ানীতে হাসিনা খালা আগে ছিলেন তাই উনিই প্রথমে ইচ্ছা পূরণের সুযোগ পেলেন । মনে মনে বুদ্ধি আটলেন এই সুযোগে খালেদা ম্যাডামরে ইচ্ছে মত বাঁশ ডলা দিবেন ।

হে অন্তর্যামি আপনি সর্বজ্ঞ , আপনি আমার মনের কথা সবই জানেন । আমি পাঁচ বছরের চেয়ে বেশী সময় সফলতার সাথে দেশ পরিচালনা করেছি । আমার উপর খুঁশি হয়ে জনগণ আমাকে দ্বিতীয় বার নির্বাচিত করেছে । কিন্তু এই যে বিরোধী দলীয় নেতা উনি দেশের মানুষের ভাল চান না । তাই আমাকে অন্যায় ভাবে সরানোর জন্য দেশে নৈরাজ্য সৃষ্টি করছে । আমি নিজের জন্য কিছু চাইনা । গণ মানুষের প্রতিনিধি এবং সেবক হিসাবে আমি এই চক্রান্ত কারীর ধব্বংস কামনা করছি ।

এবার খালেদা ম্যাডামের পালা

হে বিশ্বজগতের মহান সৃষ্টিকর্তা আপনি পরম দয়াময় । আপনি সবই জানেন । আপনি এই জালেম বাকশালী সৈরাচারী সরকারের হাত থেকে আমাকে এবং আমার দেশের জনগণকে রক্ষা করুন ।

সব শেষে এরশাদ কাকু

ঈশ্বর বললেন বৎস তুমি তোমার মনের ইচ্ছা ব্যাক্ত কর

ইয়ে মানে আমি তো অনেক বাছ বিচার করে একটা ইচ্ছের কথা বলতে চেয়েছিলাম কিন্তু ম্যাডাম দের কথা শুনে দোটানায় পড়ে গেলাম । তাই সিদ্ধান্ত নিলাম আমার ইচ্ছের কথা বলব না । এর চেয়ে বরং আপনি ম্যাডামদের ইচ্ছা পূরণ করুন ।এটাই আমার ইচ্ছা ।

একথা শুনে ঈশ্বর কেবল মুচকি হাসলেন । ।

এর পর কি হয়েছিলো জানা যায় নি ।

লেখক এই বিষয়ে জানতে পারলে অবশ্যই আপনাদের জানাবেন ।

৩৫৩জন ৩৫৩জন
0 Shares

১৫টি মন্তব্য

মন্তব্য করুন

ফেইসবুকে সোনেলা ব্লগ