একটি চিঠি

তার ছেঁড়া ১৩ ফেব্রুয়ারী ২০১৪, বৃহস্পতিবার, ০৮:৫৫:২২পূর্বাহ্ন একান্ত অনুভূতি, এদেশ, সমসাময়িক, সাহিত্য ৮ মন্তব্য

ভালোবাসা দিবস উপলক্ষে আমার কল্পনার অদ্বিতীয়ার কাছে চিঠি ।
***
আমার অদ্বিতীয়া ,

তুমি তো অপ্সরা নও । নও তো কোন ডানাকাটা রাতপরী । পৃথিবীর কোন একটা ছোট দেশের এক কোণায় স্বপ্নদেখা সাধারণ মানবী তুমি নও । সাধারণ মানবীরা এভাবে কাউকে আকর্ষণ করতে পারে তা জানতাম না । কিন্তু তোমাকে তো আমি সাধারণ মানবীই ভাবতাম । তবে কেন আমার মত অতি সাধারণ মানবকে মায়ার ছলাকলা দিয়ে আকর্ষণ করছ ? নাহ , তুমি সাধারণ নও । সাধারণের খোলশ পড়ে থাকা একজন অসাধারণ ছেলেধরা মানবী । তোমায় তো চর্মচোখে দেখিনি । তোমায় দেখি আমি আমার স্বপ্নে । যেখানে তুমি শুভ্রসাদা শাড়ী পড়ে অবাক হয়ে আমার দিকে তাকিয়ে থাকো ঠিক অবাকিনীর মত । কি নামে ডাকব আমি তোমায় ? অবাকিনী ? নাকি শুভ্রপরী বা স্বপ্নপরী ? রাতপরীটা কেমন লাগে তোমার ? নাহ , নাম দিয়ে কি হবে ! কারণ , হৃদয় যেখানে কথা বলে , মুখের ভাষাই সেখানে অর্থহীন । তোমার হৃদয় থেকেই অনুভব করে নিও তোমায় দেয়া আমার ভালোবাসার নাম ।

যাইহোক , যা বলছিলাম , ভালোবাসি ভালোবাসি বলে তোমার কানের কাছে গলা ফাটাব না । ভেবে নিও গাছের পাতা যখন বাতাসে মৃদু মৃদু কেপে ওঠে তখন সেই কম্পমান বাতাসে আমার আমার দেয়া বার্তা আছে – ‘ভালোবাসি’ । এই একটি কথাই যতেষ্ঠ হবে আমার হৃদয়ের কাব্য কথা গুলো তোমার কানে সুমধুর রাগিণীর সৃষ্টি করতে । জানি , হয়ত বেশি বেশি বলে ফেলছি । কিন্তু জানো , আমি তোমাতেই বাস করতে চাই , হতে চাই তোমার বাড়ীর সামনে ঘাসের উপর জমেথাকা জলবিন্দু । না না , ভুল বলছি না । শিশির বিন্দুর সৌন্দর্যের সাথে যে আমার তুলনা দেয়া অজ্ঞতা ! আমি জলবিন্দু হয়ে তোমার শরীরে মিশে থাকতে চাই ।

বিরক্ত হচ্ছ এই অযোগ্য , অতি সাধারণ একটি ছেলের মনের জটিল কথাগুলো শুনে ? চোখ কুচকে যাচ্ছে ? না না , তুমি চিন্তা কোর না কারণ আমার মনের সরলতম কথাগুলোই বলছি তোমায় । হয়ত আমি যোগ্য নই , আমার চেয়ে যোগ্যতর অপেক্ষা করছে তোমার জন্য । কিন্তু তুমি আমার অদ্বিতীয়া । আমার , ” অদ্বিতীয়া তুমি ” । রয়ে যাব তোমার জীবনের অচীন পাখি হয়ে । যে শুধু গান গেয়ে মুগ্ধ করে শ্রোতাদের কিন্তু , বিরহে পোড়ে সে নিজে । থেকে যাব ঘন অরণ্যে , যেখানে সারাজীবন থাকে অন্ধকার , সুর্যের আলো ও সেখানে পৌঁছাতে পারবে না । তবুও তুমি রবেই আমার অদ্বিতীয়া হয়ে ।

আরো অনেক বলার আছে । সূর্যোদয় থেকে সূর্যাস্ত থেকে বলে গেলও এই কাব্য কথার সমাপ্তি নিয়ে আমি সন্দিহান । তবুও তুমি বুঝে নিও এই গুটি কতক শব্দের মাঝে আটকে থাকা ভালোবাসার প্রখরতাকে । ইতি–

তার ছেঁড়া
একজন ঘরপোড়া গরু

[ কাউকে দেয়া হয়নি । উৎসর্গঃ আমার মত সকল সিঙ্গেল ছেলেদের :p । ]

৩৪৮জন ৩৫০জন
0 Shares

৮টি মন্তব্য

মন্তব্য করুন

ফেইসবুকে সোনেলা ব্লগ

লেখকের সর্বশেষ মন্তব্য

️️ 🍂️️ 💝 ️️ 🌟 🌺 💐 💥 🌻 🍄 🌹 💐 ⭐️ 🎉 🎊