ইচ্ছে করে , খুবই ইচ্ছে করে –হেঁটে যাব গোর খোদকের এঁদো জীর্ণ শীর্ণ কুঁড়ের পাশ ঘেঁষে নিঃশব্দে নিভৃতে ভয়ে ভয়ে গুটিসুটি মেরে ঘার বেঁকিয়ে একটু উঁকি ঝুঁকিও দিতে , ডেকে একটু গপ্প করতেও ইচ্ছে করে , কিন্তু অজানা উসখুস  সাথে প্রচণ্ড ভয় ।  কী জানি …ঘোলাটে লাল চোখে তরমুজ বিচি দাঁত কিড়মিড়িয়ে হেলে-দুলে ধুপধাপ পা ফেলে এগিয়ে এসে ভয় পাইয়ে দেয় কীনা , বা শুভ্র দাড়িতে হাত রেখে সাদা আলখেল্লায় মৃদু হেসে এগিয়ে আসে কীনা কে জানে । তবে একদিন ওর কাছে যাব সব বিপত্তি অবহেলায় ঠেলে ফেলে ।

খুব জানতে ইচ্ছে করে – শুনেছ কি —–হেসে খুন হওয়া মৃতের হাসি বা শ্মশানের মিছিলে করোটির উল্লাস ধ্বনি বা মৃতের পাঁজর ভেঙ্গে গুমরে ওঠা নীরবে সরব কান্না । কী বলে  ?—-অখন্ড সুনসান স্তব্ধ নিরব নীরবতায় একটি অবুঝ অবোধ প্রতিবন্ধী শিশু বা কিশোরী কিম্বা একহারা যুবক বা যুবতী, অশীতিপর বৃদ্ধ বা পক্ষাঘাতগ্রস্ত বৃদ্ধা বা বিষ পানে আত্মহনন-কারী যুবতী বা পণ্যা নারী বা  বীরাঙ্গনারা কী বলে তোমার কানে কানে একান্তে, অথবা নিজের গোর খুঁড়তে গিয়ে নিজের কথা কী শুনতে পাও ?

২২৯জন ২২৯জন
0 Shares

১৬টি মন্তব্য

মন্তব্য করুন

ফেইসবুকে সোনেলা ব্লগ

লেখকের সর্বশেষ মন্তব্য

সাম্প্রতিক মন্তব্যসমূহ