একটা নাম দাও

রোকসানা খন্দকার রুকু ১০ অক্টোবর ২০২১, রবিবার, ০৩:৩১:১০অপরাহ্ন একান্ত অনুভূতি ১৫ মন্তব্য

দেখছি, ভালোও লাগছে; মজাও পাচ্ছি
তোমার সেই চিরচেনা ব্যস্ততা, খুনসুটিময় সংলাপ,
বিগলিত আহ্লাদী সুর ও কনকনে প্রেম,
যা কিছুদিন আগে আমার জন্যও ছিলো।

উহ্ শব্দের শশব্যস্ততা, কষ্ট পাবার রঙগুলিও ভীষন চেনা।
আর ওই আগলে রাখবার যে সবুজ সোনালীকে
বারবার বেঁচে খাও এদোরে ওদোরে,
আর কতোকাল তা বেচাবেচি করবে এভাবে?
গন্তব্য বলে একটা শব্দ তো আছে?
সেটা নিয়েও তোমার ভাবা উচিত!

না হলে ফুরিয়ে যাবার দিন এলে আর কুলোতে পারবে না,
আর বোকাসোকার দল তখন হায়! হায়! করবে;
কষ্টও পাবে, কারণ তারা যে এখনও তোমায় অনেক অনেক ভালোবাসে।
একটা দূর্বল বাউন্ডারী তুলে চিরচেনা পথ রুদ্ধ করে,
নিজেকে সুখী ভাবার উপকরন খোঁজা নেহাত বোকামী।

ভাঙ্গন নদীর কাজ তবুও সেটা সে পছন্দ করে না,
বারবার কাঁদে কাউকে কাঁদিয়ে দেবার আগে।
তবুও যার রক্তে বিধ্বংসী বয় সে কি পারে নিজেকে আটকাতে? তাই বোধহয় তুমিও পারোনা।
মনে মনে নিজেকে ঠিকই ধিক্কার দাও, যা কেউ শোনে না।
লাভ কি এমন ধিক্কারে!

বরং বাঁধের আপন হও, আটকে যাবার স্বভাব গড়ো টেমস নদীর মতো!
স্বচ্ছ, টলটলে, সুন্দরে স্বস্তি পাবে,
এতে আর কেউ তোমার ভাঙ্গনে বুক চাপড়ে কাঁদবেও না।

ছবি- নেটের

৪৩৫জন ৩০০জন
0 Shares

১৫টি মন্তব্য

মন্তব্য করুন

লেখকের সর্বশেষ মন্তব্য

  • রোকসানা খন্দকার রুকু-এর মায়া পোস্টে
  • রোকসানা খন্দকার রুকু-এর মায়া পোস্টে
  • রোকসানা খন্দকার রুকু-এর হরন পোস্টে
  • রোকসানা খন্দকার রুকু-এর হরন পোস্টে
  • রোকসানা খন্দকার রুকু-এর হরন পোস্টে

ফেইসবুকে সোনেলা ব্লগ