একজন স্বপ্নবাজের স্বপ্নের সোপান

ইসমাইল জসীম ১১ ডিসেম্বর ২০১৯, বুধবার, ০৪:১৬:২৮পূর্বাহ্ন বিবিধ ১৫ মন্তব্য

নিজে কখনো ভাবি নি আমার আরেকটি পরিচয় নিয়ে এগিয়ে যাবো। লেখালেখি করতাম সেই কিশোর বয়েস থেকেই। কিন্তু আঁকাআকিঁ? আমাকে দিয়ে হয়নি কখনো। চিন্তাও করিনি কোনদিন আমিও আঁকতে পারবো। ‘রঙ তুলিতে চুপচাপ’ আমার রঙ তুলি সবসময় চুপচাপই ছিলো । কখনো দৌড়ঝাপ করেনি। কম্পিউটারে হাতখড়ি হওয়ার পর থেকেই ফটোশপ বিষয়টি বেশ কয়েকবার মাথায় ঘুরপাক খাচ্ছিলো। কিনতু আপন আলয়ে, আপন আঙিকে কিছুটা এগিয়ে যায়, আবার চুপচাপ। বেশ কবার নিজে্ নিজেই চেষ্টা করেছি রপ্ত করার। বই দেখে দেখে। কাজটার প্রতি মনোযোগী হতে গিয়ে বেশ কবার ভাত পুড়েছি, হাত পুড়েছি। সেই ২০০৪/৫ সালের কথা। ২০০২ সালেও একবার শেখার বেশ আগ্রহ হয়েছিলো । একজন ভিনদেশি গুরুও ঠিক করেছিলাম কিন্তু চাকরিত যোগ দেয়ার কারণে আর হয়ে উঠেনি।

২০১৯ সাল আবার সে সুযোগ এলো । এবার কোন বই কিম্বা সরাসরি গুরু নয়, অনলাইন । আমার অনেকদিনের ফেবু বন্ধু মিস জাকিয়া জেসমিন যুথী। তিনি একজন কবি, গল্পকার, ব্লগার, শিক্ষিকা ডিজাইনার। বহুমুখী প্রতিভার একজন মানুষ। শিক্ষাজীবন শেষ করে গতানুগতিক চাকরির তোয়াক্কা না করে, নিজে যা জানেন তা অন্যদের মাঝে ছড়িয়ে দিতে প্রতিজ্ঞা করলেন। হাতে কলমের পাশাপাশি বেছে নিলেন অনলাইন মাধ্যমকে। একদিন ফেবুতে তার দেয়া এক পোস্টে আমার চোখ। অনলাইনে গ্রাফিক্স ডিজাইন শেখাতে চান। বিষয়টা আমার কাছে বেশ মজার মনে হলো। তাকে নক করলাম। বিষয়টার প্রতি আমার আগ্রহের কথা জেনে তিনি আমাকে তার ‘অনলাইনে গ্রাফিক্স ডিজাইন’ কোর্সে আমাকেও শামিল করে নিলেন।

মানুষ স্বপ্ন দেখে জেগে জেগে, ঘুমের মাঝে। যে স্বপ্ন জেগে জেগে দেখে সে বাস্তবায়ন করা মানুষের হাতে। জাকিয়া সে রকম একজন স্বপ্নবাজ মানুষ। তিনি স্বপ্ন দেখেন স্বপ্ন দেখান। তার স্বপ্বের প্রথম সোপান “ Max learn IT institute” তিনি সাথে পেয়েছেন উদ্যামী, মনের দিক দিয়ে তরুণ একদল শিক্ষার্থী। সবাই পুর্ব পরিচিত হলেও কোর্সটি সম্পর্কে ছিলো সবাই অপরিচিত মুখ। একজন মেন্টরের যেসব গুণাবলী থাকা প্রয়োজন তার সবকটি গুণ আছে তার। যাদের হাতে কখনো তুলি আর রঙ উঠেনি তাদের মাউসে এখন শেপ ও ব্রাশটুল। আনাড়ি আঁকিয়ে সব আজ ভবিষ্যৎ ডিজাইনার।

৪২১জন ২১৩জন
179 Shares

১৫টি মন্তব্য

মন্তব্য করুন

ফেইসবুকে সোনেলা ব্লগ

লেখকের সর্বশেষ মন্তব্য