উপচানো শীতলতা

বন্যা লিপি ১৩ আগস্ট ২০২২, শনিবার, ০১:০৯:০৬পূর্বাহ্ন একান্ত অনুভূতি ৮ মন্তব্য

আধেক টাধেক নয়! জমাট বাঁধতে বাঁধতে স্পষ্ট পরিচয়ের অভাব নিয়ে দ্রুততর বেজায়/পাল্লায় ভারী হচ্ছে ঠান্ডা ঋতুর আবহ।

অথচ ভীড় বলছে তাপমাত্রা আরেকটু বাড়লেই মরুভূমি অনুভূত হতে বাধ্য! শাওন ঢল বা আষাঢ় বরঞ্চ বিল্পব মনে করিয়ে দিতে সচেষ্ট। বেজায় ব্যস্ত না হলেও,,,, অযথা পড়ে থাকা পুরোনো সুতোয় নকশি আঁকায় মনোযোগ বাড়াতে আরো কঠিনতর শীতলতা জাপটে ধরা। নকশি আঁকার কাপড়টা একটা চ্যালেঞ্জ; ওটা বহু পুরোনো। এখানে সেখানে ছিঁড়ে যাচ্ছে বার বার। এই এটাতেই নকশি তুলে প্রমান করতেই হবে… কাপড় ছিঁড়লেও সুতোয় তোলা নকশা কাপড়টাকে অন্য পরিচয় দিতে বাধ্য।

নকশাটাই তখন দেখবে সবে। ক্ষয়ে যাওয়া কাপড় কিংবা  কঠিন শীতল বরফ খন্ডের ধরন কারো চোখে পড়বে না। কেউ আচমকা দুঃসংবাদ নিয়ে এসে বলে- ‘ওর’ সাথে কথা হয় তোমার? : অনেক দিন হলো, কথা হয়নি, কেন বলোত! — কথা হলেও,,, একান্ত কিছু ‘ ওর’ সাথে বোলোনা, বিশ্বস্ত নয়….

: এমন কিছু জানা গেলো বুঝি?

– হু

: কি বলব, না বলব বুঝতে পারছি না। এমন তো হওয়ার কথা নয়!

: এ জগতটাই এমন জানো! বিশ্বাসটারই যত দুস্প্রাপ্যতা। বাকী সব চড়া মূল্যেেও পাওয়া যায়,,,,বিশ্বাসেরই কোনো জায়গা নেই।

তারচে তো এই ভালো! বরফ হয়ে যাক আর সব!!

 

 

নোটঃ আজ মাথা হ্যাং হয়ে আছে। হাবিজাবি লিখতে মন চাইলো। উল্টা পাল্টা ভাইবেন না সন্মানিত পাঠকবৃন্দ🙏🙏🙏

 

১২৮জন ৩৩জন
0 Shares

৮টি মন্তব্য

মন্তব্য করুন

লেখকের সর্বশেষ মন্তব্য

ফেইসবুকে সোনেলা ব্লগ