সোনেলা দিগন্তে জলসিড়ির ধারে

মাছ বাজার-কাঁচা বাজার আর ক্রোকারিজ এর দোকান ঘুরাঘুরি আমার ছোটখাটো নেশা। কারওয়ান বাজার রেলক্রসিং এর পাশে ইলিশের বাজার। অনেক অনেক দোকান। মানুষ বড় বড় ব্যাগ ভরে ইলিশ কিনে নিয়ে যায়। কেউ ১০ কেজি, কেউ বিশ কেজি। সেই বাজারের সামনে দিয়ে যাবার সময় মাছ দেখতে দেখতে যাই। গতদিন গেলাম ইলিশ মাছ কিনতে। ঘুরে ঘুরে দেখছি আর দাম জানছি। দাম শুনে ভয় জাগে।

সবাই যখন ১০/১৫/২০ কেজি করে ইলিশ নিচ্ছে কোন দরদাম ছাড়া, সেখানে হঠাৎ দেখি এক ভদ্রলোক স্ত্রী সহ একটা মাছ পলিথিনে নিয়ে মাছের ডালার দিকে তাকিয়ে আছে। স্ত্রী দোকানীকে বললো: এই মাছটা বদলে ঐ মাছটা (চোখের আন্দাজে সামান্য বড়) দেন। দোকানদার পলিথিনটা নিয়ে মাছ বের করে ডালায় ফেলে দিয়ে উচ্চস্বরে বলে: আপনের কাছে মাছ বিক্রি করুম না। আপনে যান। দুজনই লজ্জায় কুঁকড়ে গেল। মহিলা কোনমতে বললো: তাহলে টাকাটা ফেরত দেন। আরেক দোকানী হাতের সেই মাছের দাম মাছের উপর ছুড়ে দিল। তারা টাকা নিয়ে হাটা ধরছে, আমি ডাক দিলাম। দোকানদারের সামনে দাঁড়িয়ে এবার আমি চিৎকার করে কথা শুরু করলাম।
-উনাদের সাথে এভাবে কথা বলার কারণ কি!
– একটা মাছ নিবো তাও এত বাছাবাছি ক্যান! ঝামেলা করে!
– তাতে সমস্যা কি! মাগনা নিতাছে?
– মানুষ এত এত মাছ নিতাছে, কোন ঝামেলা তো হইতাছে না!
– উনারা তো দু-নম্বরী টাকায় মাছ কিনতাছে না, যে টাকার কথা ভাববে না।
– এত কথা বাড়াইয়েন না তো!
– কেন বাড়াবো না! মাছ যেটা চেয়েছে সেটা ওজন করে দাম যা হয়, তা নিয়ে মাছ ব্যাগে ভরে দেন।
ভদ্রলোক আর মহিলা ‘থাক ঝগড়ার দরকার নাই। আমরা অন্য দোকান থেকে নেবো।’ বলে চলে যান। দোকানী আমার দিকে তাকিয়ে। আমি বললাম: দেখেন উনার হয়ত একটা মাছ কেনার সামর্থ্য আছে। হয়ত ছেলে-মেয়েরা খেতে চেয়েছে। উনি কম মাছ কিনছে বলে এভাবে অসম্মান করাটা অনেক বড় বেয়াদবী। এসব করবেন না। না হয় আপনার ২০ টাকা লস যেতো একটা মাছে। তাতে আপনার কিছুই আটকে থাকতো না। এসব বলার পর আমি ওজন করা ইলিশ রেখে চলে আসলাম। ইলিশের দিকে তাকিয়ে কেমন যেন ঘৃণা জন্মালো।

এবার কিছু কথা:

ইলিশ মাছ হচ্ছে এক প্রকার মাগনা মাছ। প্রাকৃতিকভাবে জন্ম এবং বেড়ে ওঠে। এর পেছনে পুকুর, খাবার, চাষাবাদ, শ্রমিক ইত্যাদি কোন খরচই নেই। যেটুকু খরচ সেটা সব সময়ের স্বাভাবিক খরচ। সেই মাছের এত দাম হবে কেন! ইলিশ মাছের দাম সরকারী ভাবে নির্ধারণ করা জরুরী। এখন আর নির্দিষ্ট সিজন নেই ইলিশ মাছের জন্য। সারা বছর বাজারে ইলিশ পাওয়া যায়। সেই মাছ সাধারণ মানুষের পাতে জায়গা নিতে এরকম অনেক অসম্মানজনক ঘটনা হয়ত ঘটছে। সেটা বাজারে কিংবা বাসাতে। ইলিশের দাম নির্ধারণের ব্যপারে জোর পদক্ষেপ সময়ের দাবী।

১৭১জন ১৯জন
0 Shares

১৫টি মন্তব্য

মন্তব্য করুন

ফেইসবুকে সোনেলা ব্লগ

লেখকের সর্বশেষ মন্তব্য