ইচ্ছাপূরণ

সুপর্ণা ফাল্গুনী ১৮ ফেব্রুয়ারী ২০২০, মঙ্গলবার, ১২:২০:০০পূর্বাহ্ন কবিতা ৩২ মন্তব্য

আমার ও ইচ্ছা করে মাধবীলতার মতো
বিপ্লবের আরেক নাম হই,
আলোকস্তম্ভের মতো মাথা উঁচু করে
ভালোবেসে আলো দিয়ে যাই তোমাকে।
আমার ইচ্ছা করে দীপার মতো বৈধব্যকে নিয়েও
আপোষহীন,অবিচল হয়ে ভালোবেসে যাই তোমাকে।
ইচ্ছা করে শেষের কবিতার লাবণ্য হয়ে নিরবে,
নিভৃত্যে যাই ভালোবেসে।
আমার ও ইচ্ছা করে ইসল্ট ত্রিস্তানের মতো-
মরনেও যুগলবন্দী হই তোমার অধরের সূধা পানে।

ইচ্ছা করে কুহেলিকা হয়ে বুকের বাম অলিন্দে-
লুকিয়ে রাখি তোমাকে তপ্ত রৌদ্র ছিন্ন করে।
আমার ইচ্ছা করে মেঘের আড়ালে,
তারার ফুলে চন্দ্রবক্ষে বসত গড়তে।
আমার ও ইচ্ছা করে লাইলী-মজনু,
শিরি-ফরহাদের মতো প্রেমের কাব্যে অমর হতে।
আমার ও ইচ্ছা করে বনলতা, সুরঞ্জনা হয়ে-
তোমার হৃদয়ে ভালোবাসার মাতন্ড তুলতে।
ইচ্ছা করে একশো আটটি নীলপদ্ম দিয়ে,
তোমায় পূজার ছলে আষ্টেপৃষ্ঠে বাঁধতে।

ইচ্ছা করে সমুদ্রের লোনা জলে পা ভিজিয়ে-
সূর্যাস্তের বাসন্তী রঙে তোমায় নিয়ে বিলীন হতে।
আমার ও ইচ্ছা করে তোমার বুকে মাথা রেখে-
অনন্তপুরে অনন্ত যাত্রা করতে।
আমার ও ইচ্ছা করে মাটির সোঁদা গন্ধ আর
তোমার গন্ধে একাকার হয়ে যেতে।
ইচ্ছা করে তেপান্তরের মাঠে বিবস্ত্র অন্তরীক্ষের
উত্তরীয়ে, আদিমত্যের নেশায় ডুবে যেতে।
আমার ও ইচ্ছা করে শ্রাবণ ধারায় সিক্ত-
তোমারি হাতে বকুল মাল্য খোঁপায় পড়তে ।

আমার ও ইচ্ছা করে কাশবনের গহীনে-
লুকোচুরি খেলাতে হারিয়ে যেতে।
আমার ইচ্ছা করে স্বপ্ন বিভোরতায়
তোমাতেই আকন্ঠ ডুবে যেতে।
আমার ও ইচ্ছা করে ঝিরিঝিরি বাতাসে
চন্দ্রের বর্ষণে রাত ভোর হোক শানবাঁধানো ঘাটে।
আমার ও ইচ্ছা করে মেমসাহেবের মতো
মরনেও অমর রই তোমার হৃদ-মাজারে।
আমার ইচ্ছা করে শিবের পার্বতী হয়ে-
স্বর্গ রচি তোমারি চরণ তলে।

২৬০জন ২৮জন
10 Shares

৩২টি মন্তব্য

মন্তব্য করুন

ফেইসবুকে সোনেলা ব্লগ

লেখকের সর্বশেষ মন্তব্য