আমার কলম আজ ইশ পিস করছে কিছু একটা লিখব বলে
চোখে ভাসছে পিতৃ স্নেহ থেকে বঞ্চিত এক শিশুকে
যে শিশুটি হাসু আপার বাবাকে বাবা ডাকতে চেয়েছিল।
এক দুরন্তপনা কিশোর চল চঞ্চল চপলা হরিনীর মতো সদাহাস্যময়ী।
শাহিন স্কুলের সেই মেধাবী কিশোরটির কথা বলছি।
আমি আজ সেই কিংবদন্তির কথা বলতে এসেছি
আমি আজ সেই গোল্ডেন বয় শেখ কামালের কথা বলছি।

ঢাকা কলেজের টগবগে তরুণ ছাত্রলীগ নেতার কথা বলতে এসেছি।
যিনি পাক জান্তার রক্তচক্ষুকে উপেক্ষা করে স্লোগানে প্রকম্পিত করত রাজপথ।
ঊনসত্তরের অভুত্থানের কিংবদন্তী ছাত্রনেতার কথা বলছি।
আমি শেখ কামলের কথা বলছি।

আমি আজ অবিভক্ত পাকিস্তানের অন্যতম উদীয়মান তরুণ দীর্ঘদেহী ফাস্টবোলারের কথা বলতে এসেছি।
যার ফাস্ট বোলিং এর সামনে প্রতিপক্ষের পা কাঁপত
পাকিস্তানে উপেক্ষিত সেই বোলারটির কথা বলতে এসেছি।
যার অপরাধ সে একজন বাঙালী, পিতার নাম ছিল শেখ মুজিব।
আমি আজ শেখ কামালের কথা বলছি।

আমি আজ একজন সাচ্ছা দেশপ্রেমিক মুক্তিযোদ্ধার কথা বলতে এসেছি।
যে যৌবনের প্রথম প্রহরে দেশ মাতৃকার টানে
২৫শে মার্চ কাল রাত্রিতে যুদ্ধে গিয়েছিল নিরস্ত্র হাতে।
যার বুকে ছিল সাহস
দেশ মাতৃকার প্রতি টান
আর মানুষের প্রতি ছিল অগাধ বিশ্বাস।

আমি আজ সেই সাহসী যোদ্ধার কথা বলতে এসেছি।
মুক্তিযুদ্ধে সেনাবাহিনীর প্রথম ব্যাচের কমিশন প্রাপ্ত অফিসার
যিনি প্রধান সেনাপতির ১ম এডিসি সেকেন্ড লে: শেখ কামাল
যাকে বীর উত্তম খেতাব থেকে বঞ্চিত করা হল
বীর উত্তম খেতাবে ভূষিত করা হয় ২য় এডিসি খুনী নূর কে।

আমি আজ এক শিক্ষানুরাগী যুবকের কথা বলতে এসেছি
যিনি যুদ্ধ জয়ী বীরের বেশে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের
চৌখস ছাত্রটি শিক্ষায় মনোনিবশ করে।

আমি আজ এক শৌখিন সেতার বাদকের কথা বলছি
যারা সেতারের সুরে উঠত গান ,নাটক আর খেলাধুলা
রাজনীতি অর্থনীতি মুক্তি পাশাপাশি সাংস্কৃতিক বিপ্লব যার প্রেরণা।

আমি আজ এক দক্ষ সংগঠকের কথা বলতে এসেছি
যার পলকে অসংখ্য পদকের সাথে ছিল আবাহনী ক্রিয়াচক্রের প্রতিষ্টাতা ও
যার পদচারনায় মুখরিত থাকত ক্রিয়াঙ্গন
ফুটবল, ভলি , হকি আর ক্রিকেট থাকত যার রক্তে
সাংস্কৃতিক অঙন ছিল যার প্রেম

আমি আজ এক প্রেমিক যুবকের কথা বলতে এসেছি
যার প্রেমের প্রতীক্ষায় ছিল শত সহস্র ধনীর দুলালি
একটু হৃদয়ের উষ্ণতা পাওয়ার জন্য ছিল প্রতীক্ষায়
সেও ভালবাসত ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের গোল্ডন গার্ল
সহপাঠি দেশ বরণ্য এ্যাথলেট সুলতানা খুকুকে।

হে প্রেমিক এ্যাথলেট, তোমার হাতের মেহেদীর রঙ শুকাতে
ঘাতকের নির্মম বুলেট তোমার বক্ষ বিদীর্ণ করে
বাংলাদেশের বুক ছিড়ে বের হওয়া রক্ত ফোয়ারায়
আজও রঞ্জিত হয় কৃষ্ণচুড়া
তোমার বিয়েতে কল্পিত সোনার মুকুট আজও হয়নি দেখা
বুলেটের ঝাজরায় তছনচ করা ৩২ নম্বর বাড়ির আঙিনায়

আমি আজ সেই কিংবদন্তীর কথা বলতে এসেছি
আমি আজ সেই গোল্ডেন যুগলের অতৃপ্ত আত্নার কথা বলতে এসেছি।
আমি আজ শেখ কামালের কথা বলতে এসেছি
তোমরা ঘুমাও শান্তিতে বত্রিশ নম্বরের বাড়িতে
আমরা জেগে আছি আজো এই বাংলায়।

৩৭০জন ৮১জন
0 Shares

৩২টি মন্তব্য

মন্তব্য করুন

ফেইসবুকে সোনেলা ব্লগ

লেখকের সর্বশেষ মন্তব্য