আমি আর আলো দেখি না

বন্যা লিপি ২৩ সেপ্টেম্বর ২০২১, বৃহস্পতিবার, ১১:১২:১৫অপরাহ্ন একান্ত অনুভূতি ২১ মন্তব্য

সত্যি বলছি……………………….এই সব চেষ্টাগুলো ছেড়ে দিয়েছি। যখনই বলতে চাই! হৃদপিণ্ড তখনই দুনিয়ার তাবৎ শক্তি জোগাড় করে প্রতিবাদ করে ওঠে।

একটা ভারী তর্জনী টিপে ধরে বুকের মাঝ বরাবর। বিমূঢ়  বিমুখতায়, আমি আবার আলো হাতে নেবার চেষ্টা করি। অমাবশ্যা বড্ড ক্ষুধা জমাতে জমাতে : একসময় ক্লান্ত হয়ে যায়। সুঁই সুতোয় গাঁথতে গাঁথতে -পুরো আকাশ মেঘ দিয়ে ঢাকা পড়ে থাকে। নিয়মের মতই পলকা সুতো ছিড়ে- খুড়ে ঝলসে ওঠে শ্বেতাশ্রী শশী।

এখনো সময় চলে দূরন্ত অশ্বের খুরে ধুলো উড়িয়ে। আমি আর ধুলো গুণিনা। এই সব শব্দ খোঁজা আমি ছেড়ে দিয়েছি….

যখনই বলতে আসি– তখনই মরে যাবার আগে ঝিনুক একবার হা করে নিশ্বাস নেয়।বুকের মধ্যে জমিয়ে রাখা যন্ত্রণার লালায় বেড়ে ওঠা রক্তপিণ্ডের নাম দিয়েছে মানুষ মুক্তো।

কলমের মুখটা বন্ধ করিনা——-খাপ খোলা পড়ে থাক। শানিত তরবারী। ধারে কাটে যাবতীয় সত্য ঋতু।  কালি গড়ায় মিথ্যে শব্দের বাহারি চমকে! আমি আর অন্ধ হইনা- সত্যি বলছি এইসব আর খুঁজিনা। যেখানে আলো হারিয়েছে আলোর দিশা!

আমি চন্দ্রভূক অমাবশ্যার মাঝখানে হাঁটি খালি পায়ে।

একটু করে হিম জড়াই কোল টেনে। কুসুম কুসুম উষ্ণতাগুলো দূরে ঠেলে রেখে নিরন্ন বেহুলা হয়ে যাই লোহার বাসরে। আমাকেই রাখি আমি বেনো জলের কাছে। চোখের আড়াল সয়না যখন! আমার আঁচল তলে ঢাকছি কেবল চাপা আগুনের পাহাড়…..

 

 

#ছবি- নেট থেকে।

৫০২জন ৩৪৬জন
0 Shares

২১টি মন্তব্য

মন্তব্য করুন

লেখকের সর্বশেষ মন্তব্য

ফেইসবুকে সোনেলা ব্লগ