আমি আবার গ্রামে যাবো (গদ্য কবিতা)

আকবর হোসেন রবিন ২৯ অক্টোবর ২০১৯, মঙ্গলবার, ০১:০৫:০০পূর্বাহ্ন কবিতা ২৫ মন্তব্য

আমি আবার গ্রামে যাবো। প্রাইমারিতে ভর্তি হবো।

 

চৈত্র বৈশাখের তপ্ত দুপুরে বাহিরের সূর্যের দাপট বিরাজ করবে আমার ক্লাসরুমেও।

গরমে অতিষ্ঠ হয়ে হেডমাস্টার নিজ থেকেই বলবে যা আজ টিফিন টাইমেই তোদের ছুটি।

মনের আনন্দে রবী ঠাকুরের কবিতার লাইন গুলো পড়তে পড়তে বাড়ি ফিরবো..

কী করি আজ ভেবে না পাই

পথ হারিয়ে কোন বনে যাই,

কোন মাঠে যে ছুটে বেড়াই………

 

আমি আবার গ্রামে যাবো।

 

বইপত্র রেখে এক দৌড়ে পুকুর ঘাটে এসে ডুব সাঁতার খেলবো। সঙ্গী হবে কলাগাছের ভেলা।

ঘন্টাখানেক সাঁতরানোর পর চোঁখ যখন রক্তবর্ণ ধারণ করবে। তখন মায়ের বকুনি খেয়ে উঠে আসবো।

 

আমি আবার গ্রামে যাবো।

 

দুপুরে খাবার খেয়ে, মাদুর হাতে চলে যাবো করুই গাছের নিচে।

প্রকৃতির প্রাণজুড়ানো মৃদু-মন্দ বাতাস অগোচরে এসে ঘুম পাড়িয়ে যাবে পরম প্রশান্তিতে। প্রকৃতির কোমল স্পর্শে খানিকের জন্য মিশে যাবো প্রকৃতিতে।

 

খেলার মাঠের চিৎকার চেঁচামেচি কানে আসার আগে, পাশের বাড়ির গিরিবাজ কবুতর তার প্রণয়ী গুঞ্জরনের মধুর আওয়াজে ভেঙে দিবে আমার ঘুম।

 

আমি আবার গ্রামে যাবো।

 

প্রকৃতিতে যখন সন্ধ্যা নেমে আসবে তার নিজস্ব নিয়মে, তখন সন্ধ্যাদীপে আবৃত্তি করবো আল মাহমুদের ‘গৃহলতা’।

মায়ার মোহে মুগ্ধ আমি

মায়ায় ডুবে থাকি

মায়ার ঘোরে বন্দী আমি

নিজকে বেঁধে রাখি

 

আমি আবার গ্রামে যাবো।

 

পূর্ণিমা রাতে চাঁদের আলোয় উঠানে মাদুর পেতে আকাশের তারা গুনবো।

ব্যর্থ হয়ে যখন নিজের উপর বিরক্ত হয়ে পরবো, তখন আবৃত্তি করবো জীবনানন্দের ‘আকাশে চাঁদের আলো’।

আকাশে চাঁদের আলোউঠোনে চাঁদের……

 

 

ছবি: সংগৃহীত

 

১৪৭জন ১৯জন
3 Shares

২৫টি মন্তব্য

মন্তব্য করুন

ফেইসবুকে সোনেলা ব্লগ

লেখকের সর্বশেষ মন্তব্য