আমার দজ্জাল বউ এর কথা

হৃদয়ের কথা ৯ সেপ্টেম্বর ২০১৯, সোমবার, ১১:৪৭:৪৬অপরাহ্ন রম্য ১৮ মন্তব্য

আজ আমি আপনাদের সামনে বিচার চাইতে আসিনি। কারণ আমি জানি বিচারের বানী নিভৃতে কাঁদে।
নিজের দজ্জাল বউয়ের কথা, আমার উপর তার নির্যাতন, নিষ্পেষণের কথা বলতে এসেছি। আজকের নির্যাতনের কাহিনী দিয়েই এই পোষ্ট লিখছি।
কার্যোপলক্ষে মাঝে মাঝেই আমাকে দূরের শহরে যেতে হয়। দুই তিন দিন থাকতেও হয় সেখানে। বাসা থেকে বেড় হবার পরেই আরম্ভ হয়ে যায় তার খবরদারি। বাইরে কিছু খাবেনা, অপরিচিত লোকদের দেয়া কিছু খাবে না, কোন মেয়ের দিকে তাকিয়েছো কি চোখ খুঁচে উঠিয়ে ফেলবো। ট্রেন/বাসে উঠে চোখ বন্ধ করে চুপচাপ বসে থাকবা।
আজ দুপুর তিনটায় ফোনঃ
বউঃ শাওয়ার নিয়েছো?
আমিঃ না
বউঃ দুপুরের খাবার খেয়েছো?
আমিঃ না
বউঃ এক্ষন শাওয়ারে যাবা, শাওয়ার নেয়া অবস্থায় ছবি তুলবা, শাওয়ার শেষ করার পরের ছবি তুলবা। ভাত খাচ্ছো তার ছবি তুলবা, খাবার শেষ হলে খালি প্লেটের ছবি তুলবা। এরপর বিছানায় গিয়ে ছবি তুলবা। সব ছবি আমাকে পাঠাবা। মনে থাকবে?
আমিঃ হ্যা থাকবে। ( কেন যে বউকে ফেইসবুকে আইডি করার সময় ব্লক করিনি 🙁 )
বউঃ আর শোনো, বিছানায় যাবার পরে তোমাকে যদি মেসেঞ্জারে দেখি তাহলে কি যে করবো তোমাকে তা নিশ্চয়ই বুঝতে পারছো?
আমিঃ হ্যা পারছি বুঝতে।

কি আর করবো, শাওয়ার নিতে গিয়ে মুখে গায়ে সাবান দিয়ে ভেজা হাত তোয়ালেতে মুছে মোবাইলে দিতে ছবি তুললাম মুখের। সাবানের ফেনা চোখে গিয়ে জ্বলছে চোখ 🙁  জ্বলুক চোখ, কিছু করার নেই। শাওয়ার শেষ করে আবার ছবি তুললাম। ভাতের প্লেটে ভাত সবজি মাছ নিয়ে হাত দিয়ে মাখছি তার ছবি তুললাম। খাবার শেষে খালি প্লেটের ছবি তুলে বিছায় শুয়ে তার ছবিও তুললাম। মেসেঞ্জারে ছবি পাঠিয়ে দেয়ার সাথে সাথে বউর হুশিয়ারি ‘ এক্ষণই মেসেঞ্জার থেকে ভাগো ‘। আমিও একান্ত বাধ্যগত স্বামীর মত মেসেঞ্জার থেকে ভেগে গেলাম।

আসুন আমার জন্য মোনাজাত করুণ-
হে আল্লাহ্‌, তুমি দয়ালু, রাহমানির রাহিম, আমাকে এই দজ্জাল বউ এর কবল থেকে জীবনেও যেন মুক্ত না করো। আমীন………

সবশেষে কবিগুরু, না না কবিশিষ্যর ( আমি ) একটি জনপ্রিয় গান শুনুন-
এমন বউটি কোথাও খুঁজে পাবে নাকো তুমি
সে যে সকল বউ এর সেরা বউ জানি তা আমি।

১৩১জন ১জন
30 Shares

১৮টি মন্তব্য

মন্তব্য করুন

লেখকের সর্বশেষ লেখা

লেখকের সর্বশেষ মন্তব্য