আমাদের শিক্ষানীতি

ইঞ্জা ৩১ মে ২০১৬, মঙ্গলবার, ১১:৩১:২৪অপরাহ্ন বিবিধ ১২ মন্তব্য

(প্রথমেই আমি ক্ষমা চেয়ে নিচ্ছি সোনেলা ব্লগের সকলের কাছে নিয়ম লংগন করে এই লেখাটি এইখানে লিখার জন্য তার কারণ হোল এই লেখাটি আমি আমার নিজ আইডিতেও লিখেছি এবং চাই এই বিষয় সোনেলার সবার সামনে আসুক এই আমার ইচ্ছা এবং অনুরোধ করছি আপনারা  আরও বিষদ ভাবে এই বিষয় নিয়ে লিখবেন।)

 

গতকাল মাছরাঙ্গা টিভির একটি ভিডিও এতো ভাইরাল হোল যা নিয়ে ফেবু ফাটিয়ে ফেলছিল সবাই, অনেকেই পক্ষে বিপক্ষে স্টাটাস দিয়েছে সাথে আমিও ছাগলের তিন নম্বর বাচ্চার মত লাফাতে লাফাতে কমেন্ট করছিলাম এরই মধ্যে আমার প্রিয় এক ভাই এর সাথে তো তর্কই লেগে গেলো পক্ষ বিপক্ষ নিয়ে পরে আমিই রণে ভঙ্গ দিয়ে সহমত বলে বিদায় নিলাম, পরে ভেবে দেখলাম আসলে ঘটনাটা কেমন হোল?

ভাইয়ের কথাকেই যুক্তিযুক্ত মনে করে আর মন থেকেই এই স্টাটাস দিচ্ছি। ভাইজু আপনি ঠিকই বলেছেন কোমলমতি শিশুদের এইভাবে খোলাখুলি হিউমিলেইট করাটা কোনভাবেই কাম্য হতে পারেনা আর মাছরাঙ্গা টেলিভিশন কতৃপক্ষ যেভাবে শিশুদের উপস্থাপন করেছেন তা সত্যি খুবই মর্মান্তিক আর বোঝায় যাচ্ছে মাছরাঙ্গা টেলিভিশন কতৃপক্ষ এই বিষয়টি প্রচারের আগে তাদের সম্পাদক কতৃক কোন ধরণের চেক এন্ড ব্যালেন্স না করেই অন এয়ার করেছেন যা কোন ভাবেই গ্রহণ যোগ্য নয়, উনাদের উদ্দেশ্যকে আমি সাধুবাদ জানাই কিন্তু উপস্থাপন খুবই অমর্যাদাকর যা এই সব শিশু যাদেরকে উনারা সাৎকারকারে দেখিয়েছেন তাদের এবং যারা এখন পাশ করেছে, করবে সবার মনোবল ভেঙ্গে দিয়েছেন বলেই প্রতিয়মান হয়, উনারা চাইলে এই সব শিক্ষার্থীদের চেহেরা ব্লার করে দিতে পারতেন তা না করে এদের রাস্তাঘাটে, বাড়ীতে অপমানজনক ভাবে উপস্থাপন একেবারে উচিত হয়নি আর এই জন্য উনাদের কিভাবে সাধুবাদ জানাই বলুন?

এখন আসি বর্তমান শিক্ষানীতি নিয়ে যদিওবা এই বিষয়ে জ্ঞান আমার খুবই সীমাবদ্ধ এরপরেও আমার ক্ষুদ্র জ্ঞানে যা এসেছে তা আপনাদের মাঝে শেয়ার করছি। গত ৮ বছর আগে পিএসসি ও জেএসসি পরীক্ষার প্রবর্তন করা হয় যার গ্রহণযোগ্যতা নিয়ে আমার নিজের মনে সংশয় দেখা দেয় কারণ শুরুতেই আমার মেয়ে এই পিএসসি পরীক্ষার সম্মুখীন হয়, তখন আমার মনে প্রশ্ন জাগে এই ছোট্ট ছোট্ট শিশুদের কোন লাভে এই পরীক্ষা দিতে হচ্ছে আর আজকের ডিক্লারেশন দেখুন পিএসসি বাদ গেলো কারণ এই পরীক্ষার আসলেই কোন লাভ ছিলোনা হয়ত অদূর ভবিষ্যতে দেখবো জেএসসিও বাদ দেওয়া হয়েছে।

এখন আসি সৃজনশীল পড়ালেখার পদ্ধতি নিয়ে যা সমসাময়িক পদ্ধতি হলেও আমাদের যারা শিক্ষকতা করেন তাদের কাছে নতুনই বলা চলে আর এই পদ্ধতির ব্যবহারকল্পে শিক্ষা মন্ত্রানালয় গুটি কয়েক শিক্ষককে ট্রেনিং দিলেন যা খুবই অপ্রতুলই বলা চলে আর এর মান নিয়ে আমার খুবই সন্দেহ আছে আর যাদের ট্রেনিং দেওয়া হয়েছে তারা প্রায় সবাই শহর ভিত্তিক শিক্ষকতা করেন কিন্তু মন্ত্রনালয়ের জানা উচিত শহরে যত ছাত্র ছাত্রী পড়ে তার ৪/৫ গুণেরো বেশি গ্রামে পড়ছে আর তারাই এখন এই শিক্ষানীতির কবলে পড়ে ধুকে ধুকে খুঁড়িয়ে খুঁড়িয়ে চলছে সুতরাং শিক্ষা মন্ত্রনালয়ের উচিত অনতিবিলম্বে শহর আর গ্রাম পর্যায়ের শিক্ষকদের দ্রুত ট্রেনিংয়ের আওতায় এনে বৃহত পরিসরে উনাদেরকে সৃজনশীল পড়াশুনার প্রতি ট্রেইন্ড করা।

এখন আসি ফ্রি পাঠ্যপুস্তক বিষয়ে যাহা মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর বিশেষ নজরের কারনে সম্ভব হয়েছে আর এ জন্য মাননীয় প্রধানমন্ত্রীকে ধন্যবাদ না দিলেই নয় কিন্তু এই পাঠ্যপুস্তক যারা লিখছেন তাদের কাছে অনুরোধ দয়া করে এর লেখার মান আরো উন্নত করুন যাতে ছাত্র ছাত্রীদের কাছে সহজ সরল ভাবে উপস্থাপিত করা যায় যাতে তারা বুঝতে পারে তারা কি পড়ছে, তাদের যেন কাজে লাগে কিন্তু দেখবেন বানরের তৈলাক্ত বাঁশের মত যেন না হয় আবার যেন গরুর রচনার মত অযোক্তিক কোন বিষয় যেন না থাকে। তাদের পুস্তক যেন তাদের কাছে ঘটনমূলক হয় এই বিষয়ে গবেষণা পূর্বক পাঠ্যপুস্তক লিখুন।

গত দশ বছরে প্রশ্নপত্র ফাঁস যেন গোঁদের উপর বিষফোঁড়া হয়ে দেখা দিয়েছে যা আগে কখনো তেমনভাবে দেখা যেতোনা আর এতে কোমলমতি শিশু কিশোরদের মানুষিক ভাবে দুর্বল করে ফেলছে যার ফলশ্রুতিতে জিপিএ পাশের হার সন্দেহজনক ভাবে বেড়ে গেছে বলে আমার মনে হয় আর এতে ভালো স্টুডেন্টরাও খারাপ স্টুডেন্টদের চাইতে কম মার্ক নিয়ে পাশ করছে দেখে মানষিক ভাবে ভেঙ্গে পড়তে আমি নিজে দেখেছি আর এছাড়াও খুব কমই পরীক্ষা আছে যাতে এখন প্রশ্ন ফাঁস হয়না তা পিএসসি থেকে শুরু করে বিসিএস, মেডিকেল ভর্তি পরীক্ষা, বিশ্ববিদ্যালয় সহ কোন পরীক্ষায় এখন বাদ নেই কিন্তু কেনো হচ্ছে এই প্রশ্নপত্র ফাঁস আর যারা এই কুকর্মে ধরা পড়ছে তাদের কি বা শাস্তি হচ্ছে? অতএব মাননীয় শিক্ষামন্ত্রীর কাছে আবেদন দয়া করে প্রশ্নপত্র ফাঁসকারীদের বিরুদ্ধে কঠোর আইন প্রণয়নপূর্বক ধৃষ্টান্তমূলক শাস্তি প্রধান করে এই প্রশ্নপত্র ফাঁস রোধ করার ব্যবস্থা নিন নইলে আমাদের আগামীর ভবিষ্যৎ খুবই কঠিন হবে আর দেশ ক্ষতিগ্রস্ত হবে বলেই আমার ধারণা, মনে রাখবেন শিক্ষায় জাতির মেরুঢন্ড আর এই মেরুঢন্ড যদি ভেঙ্গে পড়ে তাহলে দেশের উন্নয়ন কোন ভাবেই সম্ভব নয়।।

৯১জন ৮৯জন
0 Shares

১২টি মন্তব্য

মন্তব্য করুন

ফেইসবুকে সোনেলা ব্লগ

লেখকের সর্বশেষ মন্তব্য