আমাদের মিনি

সঞ্জয় কুমার ১৯ জুন ২০১৪, বৃহস্পতিবার, ০৯:০৮:৫৪পূর্বাহ্ন একান্ত অনুভূতি, গল্প, বিবিধ, সাহিত্য ১৮ মন্তব্য


একদিন সকালে নিচ তলায় সিড়ির নিচে বিড়ালের মিউ মিউ ডাক শুনতে পেলাম । ছোট ভাই নিচ থেকে একটা বিড়ালের বাচ্চাটা নিয়ে আসল । বৃষ্টিতে ভিজে অবস্থা একবারে খারাপ । শীতে কাঁপছে । দেখে মায়া হল । ভালভাবে কাপড় দিয়ে মুছিয়ে দুধ খাওয়ালাম । অল্প দিনের যত্নে বেশ নাদুস নুদুস হয়ে উঠল । মিনি বলে ডাক দিলেই দৌড়ে কাছে চলে আসে । আমাদের সাথেই ঘুমায় । দেখতে দেখতে মিনি বেশ বড় হয়ে গেল । সে এখন আমাদের বাড়ির একজন সদস্যের মতই ।

কিন্তু এই সুখ বেশী দিন ওর কপালে সইল না । কোন এক দুষ্টু ছেলের আঘাতে ওর এক পায়ে ক্ষত তারপর ঘা । নিকটবর্তী পশু হাসপাতালে নিয়ে গেলাম । ওরা বলল এর চিকিৎসা আমাদের জানা নেই । তাছাড়া পায়ে যে ঘা হয়েছে তাতে বাচার সম্ভাবনা কম । আরও ঐ ক্ষতস্থান থেকে জীবানু ছড়াতে পারে ।

হাসপাতাল থেকে চলে এলাম । সবার মন খারাপ মিনির আমাদের সাথে ঘুমানো বন্ধ ।

মা বাবা বার বার খাট থেকে নামিয়ে দিলেও মশারীর চারপাশে ডাকাডাকি করত । শেষে ঘর থেকে বের করে দিতেন । আমাদের খুব খারাপ লাগলেও কিছু বলতে পারতাম না ।

একদিন রাতে বাবা বলল পশু ডাক্তার এসেছিল । বিড়ালটা আর বাড়িতে রাখা যাবে না । সবাই নিশ্চুপ কেউ কিছু বলছে না বাবার কন্ঠ টাও ভারী । পরে বাবা মিনিকে নিয়ে রাতের বেলায় অনেক দূরে ফেলে আসলেন । মিনি বোধহয় আগেই টের পেয়েছিল । বাবা আগে ডাকলে সহজেই আসত ঐ দিন আসতে চাইছিল না ।

বাড়ির সবার মন খারাপ । ঐ দিন আমি রাতে খাওয়া দাওয়া করলাম না । মনেহয় ছাদে বসে আধা ঘন্টা কেঁদেও ছিলাম ।

এখন আর কেউ খাওয়া সময় ডাকাডাকি করেনা । মাছের কাটা গুলো শুন্য থালেই পড়ে থাকে । রাতে ঘুমানোর সময় পায়ের কাছটা শূন্যই থাকে ।

প্রায় একমাস পর হঠাৎ বারান্দায় দেখি মিনি হাঁটছে । প্রথমে বিশ্বাস হয়নি পরে দেখলাম না ঠিকই আছে ।
যে পায়ে ঘা হয়েছিল ওটা মনে হচ্ছে অপারেশন করার মত সুন্দর করে কাটা ।

ও হয়ত বুঝেছিল অসুস্থ থাকলে এবাড়িতে তার স্থান হবে না । তাই সুস্থ হয়েই ফিরেছে । তারপর আবার সব আগের মত ।

এরপর আমরা বাসা পরিবর্তন করে নতুন বাড়িতে উঠলাম । মিনি আমাদের সাথে আসল না । মাঝে মাঝে দেখতাম । তারপর একসময় একবারেই হারিয়ে গেল ।

কোন দুষ্টু ছেলে ওকে মেরে ফেলল নাকি নিজেই অভিমানে চলে গেল ঠিক বুঝলাম না ।

আজও অপেক্ষায় থাকি হয়ত আগের মত একদিন ও ফিরে আসবে ।

ছবিতে যাকে দেখছেন ওটা মিনির ই ছবি ।

৪৩৯জন ৪৩৯জন
0 Shares

১৮টি মন্তব্য

মন্তব্য করুন

ফেইসবুকে সোনেলা ব্লগ