আমি এ কেমন স্বাধীন

ভোরেঁ ফজরের আযানে শুনি কর্কটেলের তীব্র শব্দ

ঘর হতে পা বাড়ালেই দেখি শাসকের শোষনের হিংস্রতা,

শুনি,দুঃখি খেটে খাওয়া মানুষের

পেটের তাগিদে কর্মে বাধা।

আমি এ কেমন স্বাধীন

বিয়াল্লিশটি বছর পেড়িয়েও পাইনি,

বোনের ইজ্জত আর ভাইয়ে রক্তের বিচার,

পারিনি আজও হায়নার বীজের,

বীজ উপরে ফেলার অধিকার।

আমি এ কেমন স্বাধীন

হায়নারা অট্ট্রেলিকা প্রাসাদে নিশ্চিন্তে ঘূমে বিভোর

ঘূরে বেড়ায় জাতীয় পতাকার এসি লেটেষ্ট গাড়ীতে,

বাংলার দুঃখিনী মা কাদেঁ কেবল

হায়! স্বাধীনতা বলে।

আমি এ কেমন স্বাধীন

রাজারা করে পুকুর চুরি গরীবের পেটে লাথি

ছলা কলায় পারদর্শী আমলা যাকে বলি,

দেশকে রাখে পকেট ভরে নেতাকে

রাখে দৌড়ে উপরে।

আমি এ কেমন স্বাধীন

শিক্ষায় কিংবা ধর্ম মন্ত্রনালয়ে নেই নিয়মের নিয়মাবর্ত্তীতা

রাজনিতীর নোংরামিতায় রক্ত ঝড়ায় সাম্প্রদায়ীকতায়,

পাটা-পুতার খেলায় ঘষে

মরে সাধারন আম জনতা ।

আমি এ কেমন স্বাধীন

নতুন প্রজেক্টে দিতে হয় মাসোহারা

চাদাঁবাজী আর অফিসের দূর্নিতীতে আমরা বড় অসহায়,

উচ্ কোচ্ কিছু না দিলে ভাই

পূজিঁ যদি ফিরে না পাই।

আমি এ কেমন স্বাধীন

চিকিৎসায় স্বাহ্যনীতিতে পায় যে অস্কার

সেবক ডাক্তার হয় যে অর্থের মোক্তার

অর্থের কাছে জনতা জিম্ভী

মেডিসিনে হয় যে দুই নম্বরী।

আমি এ কেমন স্বাধীন

আমার লাগেনা শিক্ষার যোগ্যতা,

পাশে যদি থাকে মাস্তানী জনতা,আমি যে দেশের সেরা নেতা

আমার নেই কোন মানবতা,

আছে যতক্ষন ক্ষমতা।

আমি এ কেমন স্বাধীন

বাঙ্গালীর বৈশাখী প্রিয় ইলিশ

হয় যে পাচার নেই কেহ দেখবার

জম্মদাতা পায়না ভর্তাও, ক্রয় কর্তা

মজা করে বৈশাখে খান ইলিঁশের ভাঁজা।

আমি এ কেমন স্বাধীন

জীবনের নেই স্বাভাবিক মৃত্যুর নিশ্চয়তা

কালে কালে হারিয়ে যায় আমাদের প্রতিভা

নেই প্রতিকার অনিয়মের মাঝে ঘটে যায় বার বার

আইন যা হয় তা ঘাতকের কথা কয়।

আমি এ কেমন স্বাধীনতা

আমি দেখি অন্যায় পারি না বলতে

পারিনা অনিয়মের শক্ত হাতের, বিপক্ষে লিখতে,

অনিচ্ছায়ও যদি করি অন্যায়ের প্রতিবাদ

নিক্ষিপ্ত হবো অন্ধকার কারাগার।

আমি এ কেমন স্বাধীন

পারিনা বলতে এ দেশ আমার মা

আমরা বাঙ্গালী,আমরাই বাংলাদেশী

বিভেদের মাঝে করবনা আর বসবাস, ঐক্যে

গড়ব এ দেশ তোমার আমার।

২৫৫জন ২৫৭জন
0 Shares

১৫টি মন্তব্য

মন্তব্য করুন

ফেইসবুকে সোনেলা ব্লগ

লেখকের সর্বশেষ মন্তব্য