আমকথন- ১

তৌহিদুল ইসলাম ১ জুন ২০২১, মঙ্গলবার, ১১:৪০:০৭পূর্বাহ্ন একান্ত অনুভূতি ১৪ মন্তব্য

আমার কাছে আম মানেই রাজকীয় ভোগ-বিলাসিতা বলতে পারেন। কারন আমের মুকুল আসার আগ থেকে আম পুষ্ট হয়ে গ্রাহক পর্যায়ে পৌঁছানো পর্যন্ত একজন সৎ আম বাগানি যত কষ্ট করেন তা নিজ চোখে না দেখলে বিশ্বাসই করবেন না। এই আমের স্বাদ যখন জিহ্বায় লাগে তখন নিজেকে রাজাবাদশা মনে হয়। জীবনের ক্ষুদ্রাতিক্ষুদ্র আনন্দের মাঝে এটাও একধরনের আনন্দ।

তবে এবারে আম নিয়ে যত অভিজ্ঞতা হয়েছে আমি মনেকরি জীবনে চলার পথে এই অভিজ্ঞতারও প্রয়োজন ছিলো। এখানে আনন্দানুভূতি যেমন আছে, তিক্ত অনুভূতিও আছে। পাঠকদের সাথে এসব অনুভূতি শেয়ার করার চেষ্টা করবো।

জীবনের প্রকৃত আনন্দ প্রাডো গাড়িতে বসে টং দোকানের চা পানের মাঝে নেই। জীবনের আনন্দ কথা দিয়ে কথা রাখার মাঝে। কারো প্রতি আস্থা অনুভবের মাঝে, পারস্পারিক আশ্বাস স্থাপনের মাঝে। টং চায়ের অতুলনীয় অনুভূতি রাস্তায় নেমে পায়ে ধুলো মেখে নিতে হয়।

একই আনন্দানুভূতি পেতে হলে আপনাকে আম বাগানে আসতে হবে। সকাল সন্ধ্যা পরিশ্রমী শ্রমিকদের ঘাম মোছার গামছাটি এগিয়ে দিতে হবে। গাছের ছায়ায় তাদের সাথে বসে এককাপ হলেও চা খেতে হবে।

আপনি যখন আম খাবেন শুধু মনে রাখবেন প্রতিটি আমেই লুকিয়ে আছে আমবাগানের সেই শ্রমিকদের হৃদয় নিঙড়ানো ভালোবাসা। দিনশেষে আপনার সন্তুষ্টিতে তাদের মুখে যে হাসি ফুটে উঠে এর মাঝেই খুঁজে পাবেন স্বর্গীয় অনুভূতি।

আজ মনটা একটু খারাপই বলতে পারেন। সৎ ব্যবসায়ীদের কাছে অর্থ নয়, তাদের রেপুটেশনটাই ব্যবসার মূলধন। যারা কাস্টমারদের সাথে অসাধুতা করে তারা আর যাই হোক ব্যবসায়ী নয়, এরা ঠকবাজ।

বিশ্বাস করে বাজার থেকে যারা আম কিনছেন সামান্য ক’টা টাকার জন্য তাদের সাথে এই ঠকবাজদের অসাধুতা এটা মেনে নিতে পারছিনা। ঠিক একারনেই মনটা খারাপ।

প্রকৃত পুষ্ট আম কখনো সবুজ হয়না। অপুষ্ট এবং সুন্দর দেখানোর জন্য আমে কারবাইড মেশানো হলে সে আম ধীরে ধীরে পাকে এবং চামড়া কুঁচকে যায়।

অর্গানিক আমে এমনটা হয়না। এই আমে চমৎকার একটি সুঘ্রাণ পাবেন। আম পাঁকলে একইসময়ে সব পাঁকে এবং চামড়া কুঁচকাবেনা। যত পাঁকবে তত মিষ্ট হবে।

আম যার কাছ থেকেই নেবেন সবকিছু বুঝে শুনেই নেবেন। কষ্টার্জিত টাকা দিয়ে যে আম কিনছেন সেটা আমের প্রকৃত স্বাদ উপভোগ করার জন্যইতো তাইনা?

আমার বাসায় আমের ম’ ম’ গন্ধে ভরে উঠেছে। এখন পর্যন্ত ৪৪৮ কেজি আম পাঠিয়েছি। ঠিক ব্যবসায়ীক উদ্দেশ্যে নয়, অনলাইনে যারা পরিচিত এবং কাছের মানুষজন আম চেয়েছেন তাদেরকেই পাঠিয়েছি।

গোপন কথাটি হচ্ছে আম পাঠিয়ে আমার এখন পর্যন্ত ৬০০ টাকা লাভ হয়েছে। আর মোবাইল বিল এবং যাতায়াতে খরচ হয়েছে এখন পর্যন্ত ৯০০ টাকা! সবাই তাজা আম খাবেন আর আমি আপনাদের হাসিমুখ দেখে মনে প্রশান্তি পাবো। এটাই জীবনের বড় পাওয়া।

সকলে ভালো থাকুন সুস্থ্য থাকুন।

১৭৮জন ২জন
0 Shares

১৪টি মন্তব্য

মন্তব্য করুন

ফেইসবুকে সোনেলা ব্লগ

লেখকের সর্বশেষ মন্তব্য