আজ থেকে তুই হচ্ছিস তুমি

নীল রঙ ২৩ এপ্রিল ২০১৪, বুধবার, ০৯:০২:৪৪পূর্বাহ্ন গল্প ২০ মন্তব্য

লিখতে লিখতে সকাল হয়ে গেলো।একটা চিঠি লিখতে যদি এক রাত চলে যায় তবে একটা কবিতা কিংবা গল্প লিখতে গেলে তো পুরা মাস লাগবে আমার।রাবিদ চিন্তায় পড়ে চিঠি তো লেখা হলো এখন সেটা উপমার হাত পর্যন্ত পৌছাবে কি করে??অনেক ভেবে নিজে দেয়ার সিদ্ধান্ত নেয় রাবিদ।যা হবে আজ হয়ে যাক।কত দিন এভাবে না বলে দহন জ্বালায় মরা যায়?উফফ পড়বি তো তাও আবার এই রাগী মাইয়ার গলায়।ভালয় ভালয় একটা দিন গেলেই হয়।থাপ্পর খাওয়ার জন্য নিজেকে প্রস্তুত করে নিয়ে বাসা থেকে বের হয় রাবিদ।

শীত থাকাতেও প্রচন্ড ঘামছে সে।ঐ যে উপমা আসছে।রিক্সাওয়ালাকে সাইডে রাখতে বলে রাবিদ।উপমা কে দেখে একটা শুকনা হাসি দেয় শুধু।
:কি স্যার আসতে এত সময় লাগলো আজ??মেকাপ করছিলেন নাকি??
-স্যরি রে তোকে মে বি অনেক ক্ষন দাঁড় করিয়ে রেখেছি??
:আরে না।আমি মাত্রই বের হইলাম।বল কি এমন জরুরি কথা যেটা ফোনে বলা যায় না?
-আগে রিক্সায় ওঠ দেন বলছি।
:না চাপলে আমি কি তোর মাথায় উঠে বসবো??চেপে বস।
-আচ্ছা রাগ করিস কেন??আয় এখন।
:কি বলবি বলে ফেল।
-আসলে তোকে কথাটা অনেক দিন ধরেই বলবো বলবো করছিলাম।বলা হয়ে উঠে নি।আসলে কি করে যে তোকে বলি সেইটাই ভেবে পাই নাই।
:ভনিতা না করে সোজা বলে ফেল তো।প্রেমে টেমে পড়িস নি তো??মুখ দেখা তো।নাকি আমার প্রেমেই পড়ছিস??খবর দার এইটা হইলে তোর রক্ষা নেই বলে দিলাম।
-হ্যাঁ পড়েছি প্রেমে।পৃথিবীর সবচেয়ে বিস্রি মেয়ের প্রেমে পড়েছি।
:কে সেটা শুনি??(অভিমানে সুরে)
-আরে তোকে বলতে পারলে তো কবেই বলতাম।দেখ তোকে তার কথা বলতে পারবো না বলেই লিখে নিয়ে এসেছি।পড় এইটা।
:ওকে।

প্রিয় তুমি,
কি নামে ডাকবো ভেবে পাচ্ছি না।জীবনে প্রথম বার তোকে তুমি করে বলছি।লজ্জা লাগছে ভিষন।চিঠিটা পড়ে নিশ্চিত একটা থাপ্পর দিবি আমাকে।আমি রেডি আছি।ওকে।
শোন সেই প্রথম দেখার পর থেকেই আমি তোর প্রেমে পড়ে গেছি।এত করেও বলা হয়ে উঠেনি।তুই যদি আমার বন্ধুত্বটাকেই ভেঙ্গে দিস সেই ভয়ে বলাই হয়নি।প্লিজ এটা করিস না।তোকে অনেক ভালবাসি।দেখ আমার কিছু নাই তোকে দেয়ার মত।এখন অফুরন্ত সময় আছে হাতে।এরপর দেয়ার মত আছে অজস্র ভালবাসা।প্লিজ তোকে ভালবাসার সুযোগ দে একবার।দেখবি দুনিয়ার যে কারো চাইতে বেশি ভালবাসবো আমি তোকে।প্লিজ না করিস না।আর যদি আমায় তোর পছন্দ না হয় তবে এখন কিছু বলিস না।একটা থাপ্পর দিয়ে দিস।বুঝে নিবো।
আর হ্যা এখন যদি আমি তোকে তুমি করে একবার ডাকি রাগ করবি না তো??
ইতি,
তোর গাধাটা

চিঠিটা পড়েই রাবিদের গালে কষিয়ে একটা থাপ্পর মারে উপমা।রিক্সাওয়ালাকে থামায়ে রাবিদ কে কিছু না বলে রিক্সা থেকে নেমে যায় সে।রাবিদ মন খারাপ করে কিছুক্ষন বসে থাকে।কি করবে কিছু বুঝে উঠতে পারছে না।বাসায় ফিরে এসে মোবাইলটা হাতে নেয় রাবিদ।একটা এসএমএস দেখে।ইনবক্সে ঢুকে দেখে উপমার নাম্বার থেকে এসেছে।কি না কি জানি লিখেছে মেয়েটা।আল্লাহ উলটা পালটা কিছু হলে মোবাইল নষ্ট করে দিও।চোখ বন্ধ করে ওপেন করে এসএমএস।ছোট্ট একটা লাইন মাত্র সেখানে লেখা।যেই লাইন ঠিক এখন রাবিদকে যুদ্ধে নামিয়ে দিতে পারে।যে লাইন শুনে ১০০ মাইল দৌড়ে আসা যায় কিছু না ভেবে।যে লাইন শুনে মরে গেলেও কোন আপত্তি থাকবে না ওর।যে লাইনটা শোনার জন্য রাবিদ ৪ বছর অপেক্ষা করে ছিলো।ছোট একটা এসএমএস অথচ সেখানে সব কিছু বলে দিয়েছে মেয়েটা।এসএমএস রিপ্লাইতে গিয়ে রাবিদ লিখে ফেলে আই লাভ ইউ টু।তুমি তুমি তুমি তুমি।আজ থেকে তুই হচ্ছিস তুমি :)।।

৩৩৮জন ৩৩৮জন
0 Shares

২০টি মন্তব্য

মন্তব্য করুন

ফেইসবুকে সোনেলা ব্লগ

লেখকের সর্বশেষ মন্তব্য