সোনেলা দিগন্তে জলসিড়ির ধারে

১৯৭৫ সালের ১৫ আগস্ট বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে সপরিবারে হত্যা করা হয়। ১৫ আগস্ট বাঙালি জাতীর এক কলঙ্কিত অধ্যায়। যতদিন বাংলাদেশ থাকবে, বাঙালি জাতি থাকবে। ততদিন এই কলঙ্কিত ইতিহাস আমাদের বয়ে বেড়াতে হবে।

কি অপরাধ ছিল বঙ্গবন্ধু? কি অপরাধ ছিল তার পরিবারের সদস্যদের? জীবনের অধিকাংশ সময় কারাভোগ করেছেন। শাসকগোষ্ঠীর রক্তচক্ষু উপেক্ষা করেছেন। একটি স্বাধীন দেশের স্বপ্ন দেখিয়েছেন। বাঙালি জাতিকে একটি স্বাধীন মানচিত্র উপহার দিয়েছেন। আমরা তাঁকেই সপরিবারে হত্যা করলাম। কি অপরাধ ছিল বঙ্গবন্ধুর সহধর্মিণী বেগম মুজিবের। কি দোষ করেছিল বঙ্গবন্ধু পুত্রবধূ সুলতানা জামান ও রোজী জামাল।যাদের হাতের মেহেদীর রং না শুকাতে বুলেটের আঘাতে রক্তাক্ত হলো বাংলার আকাশ। ছোট্ট রাসেল তাঁকেও এতো ভয়। তাঁর ছোট্ট বুকেও বুলেট ছুড়লো। তাঁকেও বাঁচতে দিল না। পৃথিবীর ইতিহাসে এমন নির্মম হত্যাকাণ্ড আর কোথায়ও ঘটেনি।

শেখ মণির অন্তঃসত্ত্বা স্ত্রী আরজু মণির অনাগত সন্তান পৃথিবীর আলোর মুখ দেখতে পেল না। কি নির্মম হত্যাকাণ্ড! বেবী সেরনিয়াবাত, সুকান্ত আব্দুল্লাহ বাবু বুলেট তাঁদেরও ঝাঁঝরা করে দিল। একসাথে এতগুলো হত্যাকাণ্ড যুদ্ধের মাঠেও হয় না। তখন তো যুদ্ধ ছিল না। সদ্য স্বাধীন একটি দেশ। স্বাধীন দেশে বাঁচার অধিকার সবার আছে। অধিকার থেকে কেন তাঁদের বঞ্চিত করা হলো। দেশের একজন সাধারণ নাগরিক হিসেবে বারবার জানতে ইচ্ছে করে। কি ছিল বঙ্গবন্ধুর অপরাধ। বাংলাদেশকে ভালোবাসা,বাংলাদেশের মানুষকে ভালোবাসাই কি ছিল তাঁর অপরাধ।

ভোরের আকাশে উঠছিল কি দিনমনি  

শুনেছিল কেউ পাখির কলতান,

শ্রাবণের শেষ আকাশ ছিল আঁধারে ঢাকা 

নিরব নিস্তব্ধ হাহাকারে পুড়ছিল 

বাংলার মানচিত্র, বঙ্গবন্ধু তুমি হারা।

ছবি–নেট থেকে সংগ্রহ করা

১৫৬জন ৪৬জন
0 Shares

২৩টি মন্তব্য

মন্তব্য করুন

ফেইসবুকে সোনেলা ব্লগ

লেখকের সর্বশেষ মন্তব্য