সোনেলা দিগন্তে জলসিড়ির ধারে

আইসক্রিম চা

সুরাইয়া পারভীন ২৭ জুলাই ২০২১, মঙ্গলবার, ০১:৪৭:০৫অপরাহ্ন অন্যান্য ৩০ মন্তব্য

সব সময় একই রকম চা খাওয়া হয়। হয় রং চা নয় দুধ চা অথবা সবুজ চা। এই খেয়ে খেয়ে চায়ের প্রতি অরুচি এসে গেছে। তো একদিন ভাবলাম এমন একটা চা বানাতে হবে যাতে  দুধ থাকবে আবার রং চায়ের স্বাদও থাকবে ষোলো আনা। যেই ভাবা সেই কাজ।

পাত্রে পরিমাণ মতো পানি দিলাম। তারপর তাতে দুটো সাদা এলাচ, দুটো দারুচিনি স্টিক, দুটো তেজ পাতা, চার/পাঁচটা লবঙ্গ আর দুই চা চামুচ চা-পাতা দিয়ে ঢেকে চুলা জ্বালিয়ে দিলাম। অন্য দিকে দুধ জাল করে বেশ কিছুটা ঘন করে নিলাম। চা-পাতাসহ পানি ফুটিয়ে এলে ছেকে কাপে নিলাম। এবার তাতে আগে থেকে ঘন করে রাখা দুধ মিশিয়ে নিলাম।

আমার সমস্ত রান্না আগে যে চেখে দেখে সে আমার তিতলী সোনা। তিতলী যদি শোনে আমি দুধ চা বানাচ্ছি তবে সে কিচেন থেকে সরে না। এই ফাঁকে আমিও একটু জ্বালাই তাকে। শুধু একবার বলতে হবে তোমাকে দেবো না। ব্যস কান্নাকাটি শুরু। পরে অনেক সেধে সেধে হাতে পায়ে ধরে খাওয়াতে হয়। ওর পছন্দের খাবার হলেই আমার মজা করতে ইচ্ছে করে। সে যা হোক এবার আসল কথায় আসি।

মেয়েকে বললাম আম্মু খেয়ে দেখো তো কেমন হয়েছে। সে মুখে দিয়ে বললো আম্মু এটা তো আইসক্রিমের মতো হয়েছে। তারপর আমিও মুখে দিয়ে দেখলাম সত্যিই তো! একদম আইসক্রিমের মতো হয়েছে। আগে পনেরো টাকা দামের একটা আইসক্রিম পাওয়া যেতো। যেটাতে মসলার ফ্লেভার থাকতো। ওই আইসক্রিম আমাদের খুব পছন্দ ছিল। দিনে দুটো তিনটে খেয়ে নিতাম। এখন আর পাওয়া যায় না। আইসক্রিমের নাম মনে নেই। তিতলী প্রায় প্রায় বলে আম্মু আইসক্রিম চা খাবো। দাও না বানিয়ে। এরপর থেকে এই চায়ের নাম হলো আইসক্রিম চা। স্বাদ বদলের জন্য সপ্তাহে দুদিন বানাই এই আইসক্রিম চা

আইসক্রিম চায়ের ছবি

২০৭জন ৭৯জন
0 Shares

৩০টি মন্তব্য

মন্তব্য করুন

ফেইসবুকে সোনেলা ব্লগ

লেখকের সর্বশেষ মন্তব্য