সোনেলা দিগন্তে জলসিড়ির ধারে

অভিশপ্ত ২১শে আগস্ট !

সুপায়ন বড়ুয়া ২২ আগস্ট ২০২০, শনিবার, ০১:০২:৪২অপরাহ্ন কবিতা ২৪ মন্তব্য

আগস্ট আসে ফিরে বারে বারে
অভিশপ্ত আগষ্ট খুনীদের পদচারনায় এই বাংলায়
২১ আসে ফিরে বেদনার অশ্রু ঝড়ে।

সেদিন মুখরিত ছিল ঢাকা জনতার পদভারে
নেত্রীর পদচারনায় ধন্য জনতা তুলেছিল উর্মিতাল
সন্ত্রাসের বিরুদ্ধে জেগেছিল রাজপথ উন্মুক্ত প্রান্তরে।

সন্ত্রাসীদের বিরুদ্ধে যখন তোমার সুস্পষ্ট উচ্চারণে
রাজপথ প্রকম্পিত হল
পাকি আর্জেস গ্রেনেড ছুড়ে তোমাকে নিশানা করে।

তোমাকে বাঁচাবে বলে ঢাকার মেয়র হানিফ
বিশ্বস্ত সেনা মাহাবুব, জাতীয় নেতারা মানব বর্ম
রচনা করে তোমার চারপাশ ঘিরে।

প্রাণচঞ্চল ঢাকা নিমিষে মৃত্যুপুরীতে ঢাকা পড়ে যায়
হতবিহব্বল মানুষ পাগল প্রায় হয়ে ছোটে
দিক বিদিক জ্ঞান শূন্য হয়ে।

শ্বেত শুভ্র বিকেল বেলা বারুদের গন্ধে আচ্ছন্ন হয়ে যায়
খুনীর বিষাক্ত নি:শ্বাসে তছনচ হয়ে যায় সাজানো বাগান গুলি
পাকি গ্রেনেড আর্জেসের বিষাক্ত ছোবলে।
উড়ে যায় হাত পা ছিন্ন মস্তক খানি।

পচাত্তরের খুনীর প্রেতাত্বারা মিলেছিল
সেদিন সুরক্ষিত বিশেষ ভবনে
হত্যা যজ্ঞের নতুন মিশনে।
নেত্রী তুমিই ছিলে হত্যাকারীর বিশেষ নিশানায়।

নেত্রী তোমাকে বাঁচাবে বলে যারা গড়েছিল মানব ঢাল
কারও উড়ে যায় খুলি, কারও উড়ে গেছে আপদ মস্তকখানি।
কার ও উড়েছে হাত পা খানি।

দুই পা হারিয়ে রক্ত সাগরে ভেসেছিল তোমার আজন্ম
পথের সাথি রাষ্ট্রপতি পত্নী আইভির বিবর্ণ মুখখানি।
নিমিষে লুটিয়ে পড়ে ২৪টি তরতাজা প্রাণ।

শত সহস্র জীবন্ত শব দেহ আজ খুঁড়িয়ে মরে
খুনীর গডমাদার সংসদে দাঁড়িয়ে বিদ্রুপ করে।

জজ মিয়া নাটকের মঞ্চে আনে
পার্থ সাহাদের জীবন বিপন্ন করে।
জয়নুল মিয়াদের তদন্তের পোষ্ট মর্টেম করে।

আগষ্ট আসে ফিরে বারে বারে
পাকি প্রেতাত্বার খুনীদের দাম্ভিকতা ঘিরে।
ওরা খুনী, ওদের কবর রচনা হবে এই বাংলায়
মানুষ গড়বে মানবের আবাস শান্তির নীড়ে।

৫৫৮জন ২৮৩জন
0 Shares

২৪টি মন্তব্য

মন্তব্য করুন

ফেইসবুকে সোনেলা ব্লগ

লেখকের সর্বশেষ মন্তব্য