অপ্রোয়জনীয়-উপসর্গ

বন্যা লিপি ২৬ অক্টোবর ২০২১, মঙ্গলবার, ১২:৩৯:১২পূর্বাহ্ন একান্ত অনুভূতি ৮ মন্তব্য

বৃ্ষ্টি শেষে রাতটুকু বড় কাতর হয়ে উঠেছিলো বুঝিবা। ভ্রূণ তর সইছিলোনা ফেটে চৌচির হয়ে মাটি ছুঁতে। নিঝুম অজগাঁয়ের বাঁশঝাড়ের খুব নিভৃতে আর্ত করুণ  শব্দ ছাপিয়ে যাচ্ছিলো অপ্রোয়জনীয় উপসর্গ প্রসব করার অপেক্ষা। আলোহীন রাত্রি চিরে জন্মাবে বলে যন্ত্রণাদায়ক এক উপসর্গ। নাড়ি ছিঁড়তে অভাব ব্লেড কিংবা ধারালো কিছু একটা। ধাত্রীর হাত তখনো টেনে ধরে আছে গর্ভফুল; অপেক্ষা…..  এক পয়সার বলাকা ব্লেড ঘুমন্ত দোকানী বন্ধ কপাট খুলে এগিয়ে দেয় কিশোরি বালিকার হাতে। নাড়ি ছিঁড়ে আলাদা হয় প্রসূত উপসর্গ। প্রসূতি নাখোশ: প্রথম দর্শনেও বিমূখ। চাইলাম কি আর  বিধাতা দিলেন কী? অপ্রয়োজনীয় উপসর্গ যেন, জন্মলব্ধ চিৎকার ভুলে নব্য বোধপ্রাপ্ত আঙুলেই খুঁজে নেয় সান্তনা সর্বস্ব তৃপ্তি। গর্ভাধার ছেড়ে বিস্ময় এই পৃথিবী সানন্দে দিয়েছে অধিকার মাটি ছুঁয়ে বেঁচে থাকতে।

বাড়তে থাকা সময় শিখিয়েছে প্রত্যেকদিন- রাত্রি, অপ্রয়োজনীয় উপসর্গ এক তুমি……..

২৭৫জন ১৯১জন
0 Shares

৮টি মন্তব্য

মন্তব্য করুন

ফেইসবুকে সোনেলা ব্লগ

লেখকের সর্বশেষ মন্তব্য