অপ্রত্যাশিত

শিরিন হক ২৪ আগস্ট ২০২০, সোমবার, ১০:৩৪:০৬অপরাহ্ন কবিতা ২৪ মন্তব্য

 

কোনো এক পরন্ত বিকেলে পরিচয়, সেও বেশিক্ষণ নয়,
বিদায়ের ক্ষণে বলেছিলো যদি চিঠি দেই আপত্তি নেইতো?
লিখতে ভালোলাগার প্রমত্ততায় বলেছিলো- চাইনা কোনো জবাব;
শুধু পত্রমিলতালির সুযোগটুকু চাই!
কিছুদিন শেষে আচমকা ডাকপিয়ন এসে হাজির!
একে একে চারখানা পত্র।
নদী-পাহাড় সমুদ্রের সেকি বর্নণা!
প্রতিটি চিঠি এক একটা গল্প :এক একটা জীবনের দৃশ্যত চিত্র।
এত সুন্দর করে কেউ লিখতে পারে?

আমার জানা ছিলোনা!
এত শব্দের বিন্যাসে পাল্টা
জবাবের কোনো ভাষা বা শব্দ ছিলো না জানা।
তবুও কিছু লিখার লোভ সংবরণ করা মুশকিল;
আমিও লিখে দিলাম চার লাইনের কিছু এলোমেলো শব্দ।
পত্র আসে একের পর এক
দুই বছর কেবলি শব্দের খেলায় শব্দ খুঁজেছি।
কখনো বঙ্কিম কখনো শরৎচন্দ্রের প্রিয় কোনো লাইন।
ইঠ-কাঠের শহর আর গ্রামের মেঠো পথের কতশত ছবি এঁকেছি শব্দের দৃশ্যে!
জানার অজান্তে মানুষ কে খুঁজিনি কোনদিন
একদিন সময়এলো, তাকে যেনো না জানালেই নয়-,
বলেছি মুঠোফোনে, -‘আগামী পরশু আমার বিয়ে
তোমাকে আসতে হবে’।
ওপাশ থেকে কোনো সাড়া মেলেনি কিছুক্ষণ
– হ্যালো হ্যালো লাইনে আছো?
:হম
-কি হলো আসবে তো?
ওপাশ থেকে বলল,
:তুমি বিয়েটা ভেঙে দাও!
তার পর আর আমাদের কথা হয়নি ,দেখা হয়নি- হয়নি পত্রমিলতালি…

৩০০জন ১৩০জন
0 Shares

২৪টি মন্তব্য

মন্তব্য করুন

ফেইসবুকে সোনেলা ব্লগ

লেখকের সর্বশেষ মন্তব্য