অনুলিপি-২

ভোরের শিশির ৮ ফেব্রুয়ারী ২০১৪, শনিবার, ০২:৩৪:৫৬পূর্বাহ্ন বিবিধ ১২ মন্তব্য

একজন সফল মানুষ হতে কি লাগে? অর্থ, বাড়ি, গাড়ি, পরিবার আর নাম… বাড়ি, গাড়ি না থাকলে অর্থ যা ছিলো তা দিয়ে ভালোই চলছিলো অনু। আর নাম?? সে অর্জনের পথেই ছিল। দুইটি গান লিখেছে, চার-চারটি কাব্য সংকলনে কবিতা প্রকাশ হয়েছে বই মেলায়, আধুনিক গঠনে কবিতা লেখায়ও সুনাম কুড়িয়েছে। এই নামের সাথে আরো জুঠেছিলো সমালোচক তকমা। পরিবার বলতে বাবা, মা, ভাই নিয়ে বেশ ভালোই ছিলো। বলা যায় সফলতার পথেই ছিল অনু।

হঠাৎ, সব  বদলে যাওয়া শুরু। নিজের মনের ভেতরে থাকা মাটির মানুষের ত্যাগের প্রতি সম্মান আর আত্মসম্মান এই দুই মিলে অনুকে তাড়ানো শুরু করলো এই সফলতার সিঁড়ি থেকে। প্রথমে ছাড়লো শহর, এরপরে একে একে ছাড়লো চাকরি এবং পরিবার। নিজেকে চিনতে, নিজের নামে নিজেকে বিচার করতে মুছে ফেললো আগের সব নাম। সবখানেই ছিলো অনু। রাজপথে, মিছিলে, মিছিলের পেছনে উদ্দীপনার যোগানে। কখনো নিজের অর্জিত নাম নিয়ে বেড়ায় নি কঠাও। একেবারে সাধারণের কাতারে যেয়ে নাম, গন্ধহীণ হয়ে মিশে গিয়েছিলো। ক’বছর নিজের জন্যে জামা কাপড় কিনেনি ভুলে গিয়েছিলো অনু, নিজের চটিজোড়া পর্যন্ত কেনা হয়নি। অথচ, সবই দিয়ে গেছে যা ছিলো তার অর্থের সাথে মিল রেখে-তবে রাজপথে, মানুষের মাঝে। মানুষের অধিকারের দাবীতে, শেখড়ের দায় মেটানোর দাবীতে, মানবিকাতার পরিচয়ে যা আসছিলো তাই ঢেলে দিয়েছে অনু। বিপদে  বন্ধু পেয়েছে সত্যি, পেয়েছে অনেক খাঁটি মানুষ। কিন্তু অনুর নিজের গাঁটে কিছু নেই যে সেই সব মানুষের সাথে আবারো রাজপথে যাবে, মানুষের অধিকার নিয়ে মানবিক হবে।

ধীরে ধীরে রাজপথের উন্মাদনা, কমে যায়, রাজপথ ছেড়ে ঘরে ফেরে সবাই। সময়ের সাথে তাল রেখে স্বনামে ফেরে সবাই, নতুন নাম নিয়ে ফেরে এরই মাঝে অনেকেই। আর অনু?

(চলবে)

১৯০জন ১৯০জন
0 Shares

১২টি মন্তব্য

মন্তব্য করুন

ফেইসবুকে সোনেলা ব্লগ