অদ্ভূত যতো প্রেম-১

খেয়ালী মেয়ে ৩ জুলাই ২০১৫, শুক্রবার, ১২:২১:২৭পূর্বাহ্ন একান্ত অনুভূতি ৩২ মন্তব্য

এই তোমারি জন্যে হতে পারি দেবদাস রোমিও ……এই তোমারি জন্যে ছেড়ে যেতে পারি সুখের পৃথিবীও !!
কুমার বিশ্বজিতের এই গানটা আমার খুব পছন্দের—গানের প্রতিটা লাইন আমার খুব ভালো লাগে—মাঝে মাঝে নিজেও গুনগুন করে গাই—গানটা শুনে যেমন ভালো লাগা কাজ করে ঠিক তেমনি অনেক প্রশ্নও মনের ভিতর উঁকি মারে—তুমি যদি বলো________সত্যিই কি তুমি বললে সবকিছু করা সম্ভব?—এই তুমির জন্য কি সত্যিই কেউ দেবদাস রোমিও হয়ে যায়?—তুমি ছাড়া কি সত্যি বেঁচে থাকা অসম্ভব হয়ে পড়ে?—সত্যিই কি তুমির জন্য কারো জীবন থেমে যায়?

তুমি আমি—এই তুমি আমি এক হয়ে দুজন মানুষের মাঝে একটা গভীর সম্পর্কের সৃষ্টি হয়,দুটি মন এক হয়,দুটি মন সব ভুলে দুজনাতে মগ্ন থাকে,দুটি মন দিনরাত আকাশকুসুম কল্পনা করে নিজেদের নিয়ে স্বপ্ন সাজায়, যাকে আমরা সবাই প্রেম বলে থাকি—পৃথিবীর যতো গল্প,কবিতা,গান,নাটক,সিনেমা সবকিছুতেই রয়েছে এই প্রেম—এই সব গান, গল্প, উপন্যাস, সিনেমাতে দেখছি প্রেমের জন্য মানুষ কিনা করছে—অনেক আগে একটা মুভি দেখেছিলাম যেখানে নায়ক মরে যায়, কিন্তু নায়িকার ভালোবাসার জোর এতোটাই যে সে ভালোবাসার জোরে মৃত নায়ক জীবিত হয়ে যায়, কি অদ্ভূত!!!—এ রকম আরো অনেক ঘটনা পড়েছি ’দেখেছি বিভিন্ন উপন্যাস মুভিতে—সমবয়সী প্রেম,ধনী গরীবের বৈষম্য ভুলে গিয়ে প্রেমে জয়ী হওয়া,অসুস্থ প্রেমিকা নিয়ে সুস্থ প্রেমিকের নতুন জীবন শুরু করা,ধর্মীয় বিভিন্ন নিয়মকানুনকে প্রেমের কাছে বলি দিয়ে প্রেমকে সার্থক করা—প্রেমের জন্য দেবদাস হওয়া—আরো কত্তো কি!!!!!!!!!!

আমার খুব ভালো লাগে যখন শুনি একটা ছেলে আর একটা মেয়ের মাঝে মিষ্টি একটা প্রেমের সম্পর্ক রয়েছে—এই প্রেমের জন্য দু’ধরনের দু’টা মানুষ এক হয়ে রঙিন স্বপ্ন দেখে,সবকিছু একে অপরের সাথে শেয়ার করে, খুব ভালো লাগে আমার—সত্যি বলতে রোমান্টিক সবকিছুই আমার খুব পছন্দের—কিন্তু বাস্তবে খুব কাছ থেকে আমি যতো প্রেমিক জুটি দেখেছি কাউকে আমি সফল হতে দেখিনি, শুধু টিভি পর্দায় আর কালো অক্ষরের মাঝেই দেখেছি প্রেমের জয়, বাস্তবে ঠিক তার উল্টোটা দেখেছি……..

এই পোস্টে সংক্ষেপে আমি আমার খুব কাছ থেকে দেখা জীবন নাটকে হেরে যাওয়া কিছু প্রেমিক জুটির কথা লিখেছি—যাদের মাঝে একসময় গভীর প্রেম ছিলো,স্বপ্ন ছিলো,পাগলামি ছিলো,যারা একে অপরের ভালোবাসায় বিভোর ছিলো—কিন্তু সময়ের ব্যবধানে সেই প্রেম মূল্যহীন হয়ে যায়—অদ্ভূত যতো প্রেম………..

**নিবেদিতা আপু দেখতে অনেকটা শরৎ রবীন্দ্রনাথের গল্পের নায়িকাদের মতো ছিলো—ইয়া লম্বা হাঁটু ছুঁয়ে যাওয়া চুল, কপালে অনেক বড় একটা টিপ, চোখে মোটা করে কাজলটানা সবসময় থাকত—হোস্টেলে নিবেদিতা আপু আর রকি ভাই এর প্রেমের কথা সবাই জানতো—জানবেই না বা কেনো? নিবেদিতা আপু নিজেই বলে বেড়াত সবাইকে—কত্তো সহজ সরল ছিলো আপুটা—চোখে মুখে তার মায়া খেলা করতো—প্রেম স্বর্গীয়, প্রেম করে মানুষ অনেক ভালো থাকে নিবেদিতা আপুকে দেখে অন্তত আমার এটায় মনে হতো—রকি ভাইয়ের সাথে যখনি দেখা করতে যেতো প্রতি রুমে সবাইকে বলে যেতো—তারপর আমরা অপেক্ষায় থাকতাম কখন ফিরে আসবে আপু?—কখন তাদের দুজনার মিষ্টি মিষ্টি স্বপ্নের কথা শুনবো—কি যে ভালো লাগতো নিবেদিতা আপুর মুখে রকি ভাইয়ের গল্প শুনতে—আমরা সবাই বলাবলি করতাম যে দুনিয়া এদিক সেদিক হয়ে গেলেও এদের প্রেম কখনো ভাঙবে না—-একদিন ক্লাশ শেষে রুমে এসে দেখি নিবেদিতা আপু হাসি হাসি মুখ করে আমাদের সবার জন্য অপেক্ষা করছে হাতে বিয়ের কার্ড নিয়ে—আমরা তো ভেবেছি বিয়ের পাত্র অবশ্যই রকি ভাই, কিন্তু না পাত্র অন্য কেউ, অথচ আপু কি স্বাভাবিক—আমরা অপেক্ষা করছি কখন আপু রকি ভাইয়ের কথা কিছু বলবে—অথচ কি অদ্ভূত! আপু রকি ভাইয়ের কথা না বলে যার সাথে বিয়ে হচ্ছে তার কথাই কোন ব্রেক ছাড়া বলে যাচ্ছে—পরে অবশ্যই জেনেছি নিবেদিতা আপু আর রকি ভাই একই ইয়ারের ছিলোতো সেজন্য রকি ভাই নিজেই এই “সেম অ্যাইজকে” একটা ইস্যু বানিয়ে সম্পর্কটাকে ভেঙে দেয়………….কি আজব! ৭/৮ বছর প্রেম করে কোন সমস্যা নেই, অথচ যখন বিয়ে করার কথা আসে তখন মনে পরে সমবয়সীকে বিয়ে করা যায় না—অদ্ভূত!!!!!!!!!!!!

 

…………চলবে……….

৭৪৭জন ৭৪৮জন
0 Shares

৩২টি মন্তব্য

মন্তব্য করুন

লেখকের সর্বশেষ মন্তব্য

ফেইসবুকে সোনেলা ব্লগ