দাসত্বের শৃঙ্খলে বন্দি হতে হতে
সিঁড়ির ফাঁদে আঁটকে থেকে আগুনে ঝলসে
অঙ্গার হয়ে যাওয়া-ই হয়তো ওদের নিয়তি,
পুড়ছে যেমন ওরা আগেও, পুড়বে আরও;
দূরে থেকে দূর থেকে অক্ষম আক্ষেপের
আহাজারি, এটুকুই শুধু অবুঝ মনের প্রবোধ;

থেকে থেকে আস্ফালন, আমি তো আগুন লাগাই-নি………
শুধু তালা আঁটকে আর ছন্নছাড়া অগ্নিনির্বাপকতা বাদ থেকেছে!
যদিও এখন ঝুলছে দুঃখের বানী!! গ্রেফতারের পর!
থলের বেড়াল উঁকি দিচ্ছে, ভবন নির্মাণে নাকি মানা হয়নি
যথাবিহিত নানা কিছু, কথা তো সেটি নয়,
এতদিন কোথায় কোন গর্তে ছিলেন এসব দেখভালের কর্তারা
সেজান জুস খেতে খেতে!!

সুনসান হয়ে যাবে সহসাই, হয়েছে যেমন তানজারিনের আগুন।
শুধুই অপেক্ষা সামান্য দিন গুজরানের।

প্রায় এক কুড়ি অগ্নিনির্বাপকের রাতভর হাঁসফাঁস-হুঙ্কার
উপেক্ষা করে বেড়িয়ে এসেছে বস্তা বস্তা মানব-কয়লা!!
বিপর্যস্ত প্রত্যাশার শেষ প্রান্তে এসে অক্ষম সান্ত্বনার
কথাটুকু জানাতে পারি দীর্ঘতম নিঃশ্বাসে নিঃশ্বাসে।

এসো, আগাম সহানুভূতি জানাই ওদের,
যারা অঙ্গার হবে বলে অপেক্ষায় আছে/থাকবে।

ছবি নেটের।

১৭৬জন ২১জন
0 Shares

২৬টি মন্তব্য

মন্তব্য করুন

ফেইসবুকে সোনেলা ব্লগ

লেখকের সর্বশেষ মন্তব্য