অকপট বৃষ্টি-ম্যাম

ছাইরাছ হেলাল ১২ জুলাই ২০১৮, বৃহস্পতিবার, ১১:০৭:৩২পূর্বাহ্ন একান্ত অনুভূতি ২০ মন্তব্য

প্রমাণ সাইজের মাছরাঙ্গাটি একাকী শুধুই ভিজছে,
ভিজছে, প্রবল বৃষ্টিতে; বিরস বিষণ্ণ বদনে,
লম্বা ঠোটে কড়া লাল-হলুদ মেখে,
ধ্যানী চৌহদ্দি ফেলে;
আশেপাশে দেখছিনা কোন মাছ-আবাস, খপ করে ধরে
গপ করে গিলে খাবে; লম্বা শক্তপোক্ত ঠোট গড়িয়ে ফোটায় ফোটায়
বৃষ্টি ঝরছে, মাথা ঝাঁকিয়ে ঝেড়ে ফেলছে বারে বারে;
ভিজে টুপুটুপু এ-পাখা ও-পাখা, পা-ও তুলে তুলে পানি ঝেড়ে ফেলছে;

এহেন ধ্যানী দুষ্টের সাথে যৌথতায় যাচ্ছি না, যাব-ও না।

(উল্টো করে আচ্ছা মত কান মলে দিতে পারলে ভাল লাগত,
বদের-বদ, বদের-হাড্ডি কোনহানকার)

—————————————————–

বৃষ্টির পোয়াতি পেট ভীষণ ভারী, শিলা ডিমে;
কখন যে কার টাক ফাটাবে কে জানে!!
ভয়ে আছি, ভয়েই থাকি!!
চান্দি-ছেলারা সাবধান!

নির্ভেজালের দুয়া চাই;

——————————————————

পানি উজিয়েছে পথে-ঘাটে, ঝুম বৃষ্টিতে;
শব্দ পেয়ে আলো ফেলে দেখি দুদুটো নচ্ছার ধারি ব্যাঙ
উপগত হয়ে আছে আনন্দ-শব্দে-শব্দে,
আনন্দ মিলনে লজ্জা থাকে না, লজ্জা হয়-ও না;

অগত্যা পাশ কাটাই পথের পথে, এই বর্ষার বৃষ্টিতে।

——————————————————–

বৃষ্টি ম্যাম রাগ করেছে, গাল ফুলেছে ঢোলে!
কিছুতেই আজ আর নেই কোন বর্ষা;
অসংখ্য দৌত্য কর্ম সবই বৃথা,
মান আর ভাংগছে না, ভাঙ্গবেও না!

অবশেষে বজ্র এলো হেলে-দুলে শির উঁচিয়ে
বিদ্যুৎ নিয়ে, দেখলাম শুধু তীব্র আলোর জ্বলক
আর বিদীর্ণ কর্ণে খান খান হয়ে যাওয়া শব্দ!

মধুর হাসির খিলখিল গুঞ্জনে
অঝোর বৃষ্টিতে ভেসে গেলাম;

৪৫৪জন ৪৫৪জন
0 Shares

২০টি মন্তব্য

মন্তব্য করুন

লেখকের সর্বশেষ মন্তব্য

ফেইসবুকে সোনেলা ব্লগ