জুন ১৯২০১৭
 

বিনাবাক্যে খাওয়া শেষ করে উঠে যায় আনন্দ। অতিথি রুমে গিয়ে ব্যাগ থেকে একটা বই বের করে হেলান দিয়ে মনযোগ দেওয়ার চেষ্টা করে। ভাবনার সাগর তখন উথাল, মধুর যন্ত্রণায় কাতর অবস্থা। বন্ধুর কথা রাখতে হলে তাকে এখানে কাটাতে হবে কিছুদিন, কিন্তু সেটা কি কখনো সম্ভব হবে? জান্নাতকে দুঃখ দেওয়ার বিন্দুমাত্র ইচ্ছা তার নাই, এমন একটা অপ্রত্যাশিত [বিস্তারিত]

জুন ১৯২০১৭
 

১৯৭৪ সাল, তখন আমার বাবা জাহাঙ্গীরনগর নগর বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য। যে সময়ের কথা বলছি তখন জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়য়ের ছাত্র সংসদের নির্বাচনের প্রস্তুতি চলছে। তিনি বুঝতে পেরেছিলেন নির্বাচনে জাসদ জিতবে তাই তিনি সরকারের কাছে ছাত্রদের জন্য নিরাপত্তা চেয়েছিলেন। কিন্তু তার পরিবর্তে একদিন দুপুরবেলা কয়েকজন ছাত্র বিনা অনুমতিতে উনার অফিস কক্ষে প্রবেশ করে এবং একজন একটি পিস্তল বেড় কোরে [বিস্তারিত]

জোনাকির আকাশ

 লিখেছেন on জুন ১৯, ২০১৭ at ১২:০০ অপরাহ্ন  একান্ত অনুভূতি  ১২ Responses &#১৮৭;
জুন ১৯২০১৭
 

একবার এক জোনাকি হুড়মুড়িয়ে, খামোখা-খুশির আবেশ ছড়িয়ে কাছে চলে এসে বলে, চলো-না উড়ি, বুনো ফুলের ঘন-সীমাহীন শরীরী-গন্ধ মেখে ঐ নীলের দূরাকাশে; অসম্ভব, বলি তাকে, ভাবি-ও, কিন্তু, চোখ উল্টে নির্বোধ! তা বলি-না; আলোজ্বলা-ডানায় ভর করে, এ-আমায় কোথায় নিয়ে এলে!! সেই থেকে বুক পকেটেই আছে, জোনাকিটি প্রজাপতি হয়ে, মরে গিয়েও জ্বলে আছে, জ্বালাচ্ছে-ও অনন্তকাল ধরে, উদাসী উদ্বৃত্ততায় [বিস্তারিত]

জুন ১৯২০১৭
 
বঙ্গবন্ধুর অসমাপ্ত আত্মজীবনী (পর্ব-৭৪)  "আমি পৌঁছেই 'আব্বা' বলে ডাক দিতেই চেয়ে ফেললেন। চক্ষু দিয়ে পানি গড়িয়ে পড়ল কয়েক ফোঁটা। আমি আব্বার বুকের উপর মাথা রেখে কেঁদে ফেললাম; আব্বার হঠাৎ যেন পরিবর্তন হল কিছুটা।"  ------শেখ মুজিবুর রহমান।

আমি চলে এলাম ঢাকায়। বরিশালে এক বিরাট সভার আয়োজন হল। শহীদ সাহেব ঢাকায় এসে নাজিমুদ্দিন সাহেবের কাছেই থাকতেন। আমরা স্টিমারে বরিশাল রওয়ানা করলাম। কলকাতা থেকে প্রফুল্লচন্দ্র ঘোষও এসেছেন। বরিশালে বিকালে সভা শুরু হল, কয়েকজন বক্তৃতা করেছেন। আমাকেও বক্তৃতা করতে হবে, রাত তখন আট ঘটিকা হবে, এমন সময় একটা টুকরা কাগজ আমার হাতে দিল। আমি শহীদ [বিস্তারিত]