শূন্যতার রাত-পোশাক

 লিখেছেন on জুন ১১, ২০১৭ at ১০:৩৪ অপরাহ্ন  একান্ত অনুভূতি  Add comments
জুন ১১২০১৭
 

সারি-সারি ঝুলে আছে রাত-পোশাক
অনেক, অজস্র, কিন্তু রাত কৈ!!
কোন্‌ অভিসারে!! কোথায়!!

চুনোপুঁটি-স্বপ্ন বা তীব্র শীতে জাপটে ধরা
উষ্ণ-ঋতুর-বৈভব, স্নান-শরীরে লুকোবে কী-করে!!
টুক-টুক করে হেঁটে-হেঁটে আসার শব্দ-খোঁজ!!
উত্তেজক-স্তিমিত-চোখ, স্ফীত-ঠোঁট,
কাচ-বারান্দায় বসে-বসে অপেক্ষার অবলোকন।
কোন্‌ কৌটিল্য-কৌশলে এড়াবে!!

অন্ত্যক্ষরণের মত আপসে-আপ ভেসে আসবে
অনুভবের স্রোত বেয়ে,
লেপ্টে যাওয়া লিপিস্টিক, চোখ-কাজল
বিবর্ণতায় মলিন চিবুক, হতোদ্যম শরীরী আয়তনে!!
আনন্দ-ক্লান্তির ধনুক-প্রেম শেষে
ও-কিছু-না বলে ঝিলিক মেরে বাস্তুহীনকে দিলে
অঘাধ-অবোধ সান্তনা!!
সাগর-কূলে দাঁড়িয়ে দুর্দান্ত এক ‘একা’;

(মোট পঠিত 252 বার)

  ২০টি মন্তব্য, “শূন্যতার রাত-পোশাক”

    
  1. পোষাক আছে রাত নেই!
    আছে কোথাও কি করে রাত কে জানে? কেবল অভিসারও নাও হইতারে, আবার হইতারেও :)
    এড়াবার সাধ্য কি আছে এমন তীক্ষ্ণ চোখ থেকে,
    একাকীত্ব দূর হোক এই লেখার।

  2. 
  3. এই টা কি কবিতা ? আমি তো কবিতা কম বুঝি তবু ও পড়ে ভাল লেগেছে, খুব গুছানো শব্দ গুলো ।

  4. 
  5. বহুদিন পর এলাম! এসেই এমন কবিতা! রূপক কবিতার অ, আ, ক, খ-তে দাঁড়িয়ে আছি।
    আচ্ছা কোথাও কেউ থাকেনা কেন বলুন তো!

  6. 
  7. “একা” কে চরিত্র না বানিয়ে দিলেও কিন্তু দারুন ব্যাপার হতো। রাতও কোন চরিত্র হতোনা। মিষ্টমিষ্টি শব্দের বুনোনে অভিসারী রাত প্রেমে নিমজ্জিত হতো, কোন শূন্যতার। লেপ্টে যাওয়া লিপস্টিক, চোখ কাজল, স্ফিত ঠোঁট, একার কল্পনা গুলো রাতের আলোয় গভীর ডুবে নিমজ্জিত হতো।
    কাঁচ বারান্দার অপেক্ষা খুবই যন্ত্রনার, অন্ত্যক্ষরণ তুচ্ছ। ক্ষয় হলেই বেঁচে যাওয়া যেতো।
    কী দেব নাম? ছলনাময়ী, মিথ্যেবাদী, হন্তারক! আজ থেকে রাতের জন্য আর আলাদা কোন পোষাক নয়।
    লেখাটি চমৎকার। ভেতরে যেতে পারলাম বলেই হয়তো। ক্যাম্নে লেখেন ম্যান?

  8. 
  9. সাগরকুলে দাঁড়িয়ে কি “একা”র মন শান্ত করার চেষ্টা? ক্যান যে কম বুঝি :(

  10. 
  11. রাত আছে কিন্তু রাতের সব বৈশিষ্টই হারিয়েছে।
    চোখ আছে ঘুম পালিয়েছে।
    একা এক রাত্রির অভিসারে! ভালোই তো। কেউ যখন থাকে না তখন সাগর পাড়ে হাওয়ার সাথেও কতো কথা বলা যায়।
    কাঁচ বারান্দা ভেঙে দিয়েছি। যেখানে আটকে থাকতো তাকে ছুঁয়ে আসা বাতাস।
    এতো এতো রাত্রির অভিসার ভালা না।

  12. 
  13. খুব বেশী রাত পোশাক বানিয়ে ফেলেছেন তাই তো ঘুম নাই। একা রানীর অভিসারে যেতে পোশাক টোশাক লাগেনা।
    কাঁচ বারান্দায় বসে অপেক্ষা করে লাভ নেই ,
    সাগরপাডে গিয়ে হাওয়া খেয়ে আসেন।
    :D):D)